পেশ হল দ্বিতীয় এনডিএ সরকারের প্রথম বাজেট। দ্বিতীয় মহিলা অর্থমন্ত্রী হিসেবে বাজেট পেশ করলেন নির্মলা সীতারামন। এদিন তিনি আগামী ১০ বছরের জন্য সরকারের স্থির করা লক্ষ্যের কথা বলেছেন। ১০টি পয়েন্টের সেই লক্ষ্য স্থির করা হয়েছে। ১০টি পয়েন্টের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন বিষয়।

একঝলকে দেখে নেওয়া যাক সেই বিষয়গুলি:

Jan Bhagidari: এই বিষয়টা নতুন নয়। মিনিমাম গভর্মেন্ট ও ম্যাক্সিমাম গভর্ন্যান্স অর্থাৎ কম আয়তনের সরকার নিয়ে বেশি পরিষেবা দেওয়ার কথা আগেও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গত পাঁচ বছরেও বারবার এই বিষয়ের উপর জোর দিয়েছেন মোদী সরকারের নেতা-মন্ত্রীরা। এদিন বাজেট বক্তৃতাতেও সেই কথা বলেছেন অর্থমন্ত্রী।

Green Mother Earthand Blue Skies: মূলত দূষণ মুক্ত করার কথা বলেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ। গত বার ক্ষমতায় এসেই ‘স্বচ্ছ ভারত’অভিযান দিয়ে কাজ শুরু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এবার নতুন সরকারের শুরুতেই ফের দূষণমুক্তির কথা বলা হল।

দূষণমুক্তির জন্য ইলেকট্রিক গাড়ির দিকে জোর দেওয়া হয়েছে। বেশি করে ইলেকট্রিক গাড়ি যাতে কেনা হয় তার জন্য এই ধরনের গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর ছাড়ের কথা বলেছেন নির্মলা সীতারামণ। এছাড়া সৌরচালিত প্রোডাক্টেও ছাড়ের কথা বলা হয়েছে।

Digital India: এই ধারনাও নতুন নয়। ২০১৪ থেকেই ডিজিটাল ইন্ডিয়া গড়ার লক্ষ্য নিয়েছিল মোদী সরকার। লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে আগামী ১০ বছরে যাতে অর্থনীতির প্রত্যেকটা সেক্টরে ডিজিটাল ইন্ডিয়ার ছোঁয়া লাগে, সেই চেষ্টাই করছে সরকার।

Gaganyan, Chandrayan: মহাকাশ সংক্রান্ত প্রোগ্রামের দিকে বিশেষ জোর দিচ্ছে সরকার। গগণায়ন ও চন্দ্রায়ন- দুটি প্রজেক্টের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। গত বছর স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গগণায়নের কথা ঘোষণা করেছিলেন। জানিয়েছিলেন শীঘ্রই ভারতীয়রা মহাকাশে যাবে। আপাতত সেই লক্ষ্যে কাজ চলছে। একইসঙ্গে চাঁদেও যাবে ভারতীয় মহাকাশযান।

Physical and Social Infrastructure: বিভিন্ন ধরনের নির্মাণ হবে দেশ জুড়ে। হতে পারে রেল, রাস্তা কিংবা মেট্রো। সব ক্ষেত্রেই অনেক টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বাজেটে।

Water management, Clean rivers: জল বাঁচানোর ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে কেন্দ্র। সম্প্রতি দেখা গিয়েছে, বিভিন্ন রাজ্যে জলের অভাব দেখা গিয়েছে। জল বাঁচানোর বিভিন্ন উপায়ও বলা হচ্ছে। তাই ওয়াটার ম্যানেজমেন্টে বিশেষ জোর দিল সরকার।

আর নদী পরিস্কার করার ভাবনা-চিন্তাও মোদী সরকার আগেই করেছে। গঙ্গা পরিস্কার করার প্রজেক্ট চলছে ইতিমধ্যেই।

Blue Economy: সামুদ্রিক সম্পদ ব্যবহার করে যে পথে আর্থনীতি এগোতে পারে, সেটাকেই বলা হয় Blue Economy. আগামী ১০ বছরে সমুদ্রের সম্পদ ব্যবহার করার দিকে বিশেষ নজর দেবে ভারত।

Export of Food-Grains: খাদ্যশস্যের রফতানির উপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। শুধু খাদ্যশস্য নয়, দানা, ফল, সবজি, তৈলবীজ- সবই রফতানি করা হবে।

Ayushman Bharat: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই বিশেষ যোজনার সূচনা করেন। এর আওতায় গরিব পরিবারকে পাঁচ লক্ষ্য টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য বীমার ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। এই আয়ুস্মান ভারত আগামী ১০ বছরে আরও বিস্তৃত হবে।

Make in India: মেক ইন ইন্ডিয়াও মোদীর স্বপ্নের প্রজেক্ট। প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সরঞ্জাম, ইলেকট্রিক জিনিস, ব্যাটারি ও মেদিক্যাল ডিভাইস দেশে তৈরি করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.