কলকাতা: চলে গেলেন সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেন। তাঁর প্রয়াণে সাহিত্য জগতে শোকের ছায়া। ইতিমধ্যেই শোকবার্তা দিয়েছেন বহু সাহিত্যিক। প্রিয় নবনীতার চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ।

তিনি kolkata24x7-কে বলেন, “নবনীতা আমার বহুদিনের বন্ধু। আমরা একই বছর স্কুল ফাইনাল পাশ করি। নবনীতা প্রেসিডেন্সিতে ভর্তি হল। আমি সেন্ট জেভিয়ার্সে পড়তাম। নবনীতা যখন আমেরিকায় চলে গেল তখন প্রচুর চিঠি লিখতাম ওঁকে। নবনীতা উত্তর পাঠাত। এরপর অমর্ত্যর সঙ্গে বিয়ে হল।

অমর্ত্যর মা যখন মারা যান আমি তখন শান্তিনিকেতনে ছিলাম। শাশুড়ির মৃত্যুর সময় নবনীতা আমাকে অমর্ত্যদের বাড়িতে নিয়ে যায়। ওঁদের সঙ্গে একটা পারিবারিক যোগাযোগ ছিল। অমর্ত্যর বাবা চলে যাওয়ার পর অনুষ্ঠান হয়েছিল। সেখানে ঋতু গান গেয়েছিল। আমিও গিয়েছিলাম।

নবনীতা ঋতুরও বন্ধু ছিল। ওঁর চলে যাওয়ার খবরটা পেয়ে শোকাবহ তৈরি হল। আমার গান খুব ভালবাসত নবনীতা। নবনীতার জন্মদিনে আমি ওঁর বাড়িতে গিয়েছিলাম। শঙ্খ ঘোষ এবং মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়ও গিয়েছিলেন। মানবেন্দ্র ওঁর কলিগ ছিলেন। নবনীতা যাদবপুর ইউনিভার্সিটিতে কমপারেটিভ লিটারেচার পড়াত।

আমার মনটা আজ খুব খারাপ হয়ে আছে। নবনীতার সঙ্গে টেলিফোনে প্রায়ই কথা হত। এমন কি টেলিফোনেও গান শুনতে চাইত! আমি বাধ্য হয়ে গান শোনাতাম ওঁকে। আমি নবনীতার থেকে বয়সে বড়। ও পড়াশোনায় খুব ভাল ছিল। প্রমোশন পেয়েছিল। তাই আমরা একই ইয়ারে পড়তাম।

নবনীতার কথা আমার নানা লেখায় লিখেছি। ছোটবেলা থেকেই ওঁর সঙ্গে এক অদ্ভুত বন্ধুতা ছিল আমার। আজ এসব কথা বলতে খুব খারাপ লাগছে।”