অবশেষে অপেক্ষা শেষ হতে চলেছে বিএসএনএল (ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড)-এর কর্মীদের। জানুয়ারি মাসের বেতন তাঁরা খুব সম্ভবত পেয়ে যাবেন মার্চ মাসের প্রথম এক সপ্তাহের মধ্যেই। হোলির আগেই এই বকেয়া বেতন হাতে পেয়ে যেতে পারেন কর্মীরা।

একদিকে এটা যেমন খুশির খবর, অন্যদিকে রয়েছে খারাপ খবরও। একাধিক গ্রাহকদের আশায় জল ঢালার মতো ঘোষণা করা হয়েছে বিএসএনএল কর্তৃপক্ষের তরফে। এই সংস্থা জানিয়েছে, আপাতত পিছিয়ে দেওয়া হল বিএসএনএল-এর ফোর-জি লঞ্চিং। আগে জানা গিয়েছিল, ২০২০ প্রথম দিকে ফোর জি পরিষেবা নিয়ে আসতে চলছে বিএসএনএল। তবে এবার জানানো হয়েছে, সেই তারিখ পিছিয়ে করা হয়েছে চলতি বছরের জুলাই মাস। কেন্দ্রের তরফে অর্থনৈতিক সাহায্য পেতে দেরি হওয়ার কারণেই ফোর জি পরিষেবা দেরিতে শুরু করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

বিএসএনএল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বেশ কয়েকজন ক্লায়েন্ট বকেয়া টাকা পরিশোধ করায় ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে বিএসএনএল সর্বাধিক আয় করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছ। একটি ইংরেজী সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, জানুয়ারিতে যেখানে এই মোট আয় ছিল ১৩০০ কোটি টাকা, ফেব্রুয়ারিতে আশা করা যাচ্ছে আয় হবে ১৮০০ কোটি টাকা। মার্চে এই বেড়ে হতে পারে ২০০০ কোটি টাকা।

এবছর হোলি পড়েছে ৯ মার্চ। বিএসএনএল জানাচ্ছে, তাঁর আগেই জানুয়ারি মাসের বেতন পেতে পারেন কর্মীরা। উল্লেখ্য, চলতি মাসের ১৫ তারিখে ফেব্রুয়ারির বেতন হাতে পেয়েছিলেন বিএসএনএল কর্মীরা। তার সপ্তাহ দু’য়েক কাটতে না কাটতেই ফের স্বস্তিদায়ক খবর তাঁদের জন্য।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ