স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: হরিনাথপুর গ্রাম। মালদহ জেলার হবিবপুর থানার সীমান্তবর্তী গ্রাম। আর পাঁচটা সীমান্ত এলাকা গ্রামের মতনই এই গ্রামের চরিত্র। অশিক্ষা ও অবহেলায় বড় হয়ে ওঠা শিশুদের জীবন। বিশুদ্ধ পানীয় জল থেকে শৌচাগার, কিছুই নেই এই গ্রামে।

নেই এর তালিকা বেশ লম্বা। ফলে সামাজিক অপরাধে জড়িয়ে যাওয়ার প্রবণতা রয়েছে। এই অঞ্চলের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানেরা এই গ্রামের বাসিন্দাদের এমন দুরবস্থা নিত্যদিন অনুভব করেন। তাই তাদের এই অন্ধকার জীবনে আলোর বাতি নিয়ে হাজির মালদহ জেলার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানেরা।

তাঁরা সঙ্গে করে নিয়ে এলেন শিশুদের জন্য খাতা, পেন, স্কুল ব্যাগ, ছাড়াও খেলার সামগ্রী। আর গ্রামের পরিবারদের জন্য বিশুদ্ধ পানীয় জলের মেশিনের ব্যবস্থা করলেন।

মালদা বিএসএফের ডিআইজি সঞ্জয় গৌড় জানান এমন কাজের ফলে গ্রামবাসীদের সাথে সুসম্পর্ক তৈরী হবে। বিপদমুক্ত হবে এ দেশ। সীমান্তরক্ষীদের পাশে পেয়ে স্বাভাবিকভাবে খুশি গ্রামবাসীরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.