তুফানগঞ্জ: আবারও পাচারকারী সন্দেহে তৎপরতা বিএসএফ-এর। সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে নিহত কিশোর। ঘটনা ঘিরে রবিবার রাতভর উত্তেজনা কোচবিহারের তুফানগঞ্জের বালাভূত এলাকায়। ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে উত্তেজনা আরও বাড়ে। পুলিশকে ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু করেন এলাকাবাসী।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রবিবার গভীর রাতে তুফানগঞ্জের বালাভূতে অভিযান চালায় বিএসএফ। ওই এলাকা দিয়ে গরুর পাচার হওয়ার খবর পায় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী। সেই মতো আগেভাগে এলাকায় পৌঁছে যান বিএসএফ-এর জওয়ানরা।

বিএসএফ-এর দাবি, এলাকায় যেতেই তাঁদের লক্ষ্য করে বেশ কয়েকটি বোমা ছোড়ে পাচারকারীরা। এলাকায় আগে থেকে জড়ো করা হয় প্রায় ৮০টি গরু। পশুগুলি বাংলাদেশে পাচারের ছক ছিল। বিএসএফ যেতেই পাল্টা আক্রমণ করে পাচারকারীরা। উত্তরে গুলি ছুড়লে শাহিনুর হক নামে ১৮ বছরের এক কিশোরের মৃত্যু হয়।

এদিকে, বিএসএফ ঘটনাস্থলে যেতেই বোমা ফাটিয়ে এলাকা ছাড়ে পাচারকারীরা। স্থানীয়দের দাবি, পাচারকারীদের সঙ্গে কোনও যোগ ছিল না নিহত কিশোরের। রবিবার রাতে বাড়ির সামনেই ঘোরাঘুরি করছিল শাহিনুর।

পাচারকারী সন্দেহে বিএসএফ তাকে গুলি করে খুন করে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। এই ঘটনা ঘিরে রবিবার রাতভর এলাকায় উত্তেজনা থাকে। স্থানীয়দের তুমুল বিক্ষোভের জেরে এলাকা ছেড়ে চলে যায় বিএসএফ।

পরে খবর পেয়ে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ যেতেই এলাকা আরও উত্তপ্ত হয়। পুলিশকে ঘিরে প্রবল বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। স্থানীয়দের বাধার মুখে পড়ে মৃতদেহ উদ্ধারে বেগ পেতে হয় পুলিশকে। যদিও এই ঘটনায় বিএসএফ-এর তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও