নয়াদিল্লি: দেশের সীমান্তের পাহারায় থাকে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স। দেশরক্ষায় তাদের গুরুত্ব অনেকটাই বেশি। তাই বিএসএফের উপর বিশেষ নজর রাখে সরকার। কেউ কোনও সন্দেহজনক কাজকর্ম করছে কিনা, তা নিয়মিত দেখা হয়। তবে এবার দেশের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই বিএসএফ-এর জন্য নতুন নির্দেশিকা দিল মোদী সরকার। এবার থেকে বিলাস-বহুল জীবন যাপন করলেই সেইসব বিএসএফ অফিসারের উপর কড়া নজর রাখা হবে।

যদিও কেন্দ্রের এই নির্দেশিকায় বিরক্ত বিএসএফ অফিসারদের একাংশ।

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে চোরাচালানকারীদের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে বিএসএফের এক সিনিয়র কমান্ডিং অফিসারকে গ্রেফতার করে সিবিআই। আর তারপরই এমন পদক্ষেপের কথা ভেবেছে সরকার। ওই অফিসারকে ৪৫ লক্ষ টাকা নগদ সহ গ্রেফতার করা হয়েছিল।

সম্প্রতি কেন্দ্রের তরফে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে, তাতে বলা হয়েছে, ‘দুই দেশের সীমান্তে মোতায়েন থাকা বিএসএফ অফিসারদের উপর বিশেষ নজর রাখা হবে। সন্দেহজনক কিছু দেখলেই সঙ্গে সঙ্গে রিপোর্ট করতে হবে বিএসএফ হেডকোয়ার্টারে।’ যদি কোনও অফিসারকে বিলাস-বহুল জীবনযাপন করতে দেখা যায় আর দেখা যায় যে তাঁর রোজগারের সঙ্গে খরচের কোনও সঙ্গতি নেই, তাহলে তাঁকে সন্দেহের তালিকায় রাখা হবে।

ওই অফিসার কার সঙ্গে দেখা করছেন, কোন হোটেলে যাচ্ছেন -সবটাই নজরে রাখা হবে।