জলঙ্গি:  সীমান্তে বিএসএফ-বিজিবির মধ্যে ব্যাপক গুলির লড়াই। আর এই গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হল বিএসএফের এক জওয়ানের। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে জলঙ্গির কাটমারি চকে। মৃত জওয়ানের নাম বিজয় ভান সিং (৫০)। ১১৭ ব্যাটিলিয়ন কর্মরত বিএসএফ ডিআইবি পদে কর্মরত ছিলেন, উত্তরপ্রদেশের আগ্রার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। এই ঘটনায় জখম হয়েছেন আরও এক জওয়ান। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে সীমান্ত এলাকায়।

এই ঘটনার পরেই সীমান্তে ফ্ল্যাগ মিটিংয়ে বসেছেন বিএসএফ এবং বিজিবির আধিকারিকরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন বিএসএফের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা।

ঘটনার সূত্রপাত ভারত এবং বাংলাদেশ সীমান্তের দিকে আটকে পড়া মৎসজীবিদের ছাড়ানো নিয়ে। সীমান্ত এলাকার কাটমারি চকে বিএসএফের একটি আউট পোস্ট রয়েছে। তার উল্টোদিকেও বিডিআর আউট পোস্ট আছে। এদিন এক মৎসজীবি মাছ ধরতে সীমান্ত পেরিয়ে ভুল করে চলে যান বাংলাদেশের দিকে। হাতেনাতে ওই মৎস্যজীবীকে বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা ধরে ফেলে।

এই ঘটনার জেরে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল এগারোটা নাগাদ বিএসএফ ডিআইবি বিজয় ভান সিং অন্যান্য বিএসএফ জওয়ান ও বাংলাদেশ বিগিবি-র মধ্যে ফ্ল্যাগ মিটিং করছিল। অভিযোগ ফ্ল্যাগ মিটিং চলাকালীন বিজয় ভাং সিং-এর উপর গুলি চালায় বাংলাদেশ বিডিআর। ঘটনার জেরে জখম হন আরও এক বিএসএফ জওয়ান। দুপক্ষের মধ্যে শুরু হয় ব্যাপক গোলাগুলি। উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

অন্যদিকে বিডিআরের গুলিতে আহত বিজয় ভাং সিং-কে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে মৃত্যু হয়। ঘটনায় গুরুত জখম বাহিনীর আরও এক জওয়ান।