লন্ডনঃ  রাশিয়া সীমান্তে ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে ব্রিটেন। সীমান্ত সংলগ্ন বিস্তির্ন এলাকায় ক্রমশ সেনা উপস্থিতি জোরদার করা হচ্ছে। ন্যাটো সামরিক জোটের মিশনের অংশ হিসেবে ব্রিটেন রুশ সীমান্তে নতুন করে সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে। আর এই সিদ্ধান্তে চরম ক্ষুব্ধ পুতিনের দেশ। সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় সেনা বৃদ্ধির বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া না হলেও পুরোটার উপর নজর রাখার নির্দেশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের। একই সঙ্গে রাশিয়ার তিন সেনাবাহিনীকেও সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন মিস্টার প্রেসিডেন্ট।

যদিও ব্রিটিশ সরকার দাবি করছে, রাশিয়ার পক্ষ থেকে হুমকি রয়েছে। ব্রিটেনের একাধিক প্রকাশিত সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে যে, এস্তোনিয়ায় পাঁচটি অ্যাপাচি হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে। ব্রিটিশ সরকারের এই পদক্ষেপে বাল্টিক দেশগুলোতে ন্যাটো বাহিনীর উপস্থিতি শক্তিশালী হবে বলেও দাবি করা হয়েছে ওই সমস্ত সংবাদমাধ্যমে।

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী উইলিয়াম গ্যাভিন এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, রুশ সীমান্তের কাছে সেনা মোতায়েন জরুরি ছিল। কারণ রাশিয়ার পক্ষ থেকে হুমকি রয়েছে। বিশ্বাসযোগ্য সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতেই এই সিদ্ধান্ত বলে দাবি তাঁর। হেলিকপ্টার মোতায়েনের মাধ্যমে ব্রিটেন পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিল বলেও তিনি মন্তব্য করেন। বিটেনের এই পদক্ষেপকে ন্যাটোর বহু দেশ স্বাগত জানিয়েছে বলেও উইলিয়াম গ্যাভিন দাবি করেন।