স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: প্রেমিকাকে পালিয়ে নিয়ে সরকারি গাড়িতে করে কালীবাড়িতে বিয়ে করতে যায় যুগল। মেয়ের বাড়ির লোক খবর পেয়ে দলবল নিয়ে সেখানে হাজির হয়৷ হবু বরকে উত্তম মধ্যম পিটুনি দেয়৷ গণধোলাই খেয়ে বর কনে ও ড্রাইভারকে পুলিশের হাতে তুলে দিল উত্তেজিত জনতা। ঘটনায় রাতে চাঞ্চল্য ছড়াল জলপাইগুড়ি টেম্পল স্ট্রিট এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জলপাইগুড়ি মোহিত নগর এলাকার বাসিন্দা শ্রীবাস পাল (২৫) এবং রুপালি রায় ২২ (নাম পরিবর্তিত) এর দীর্ঘদিন ধরে ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। কিন্তু শ্রীবাসকে মেনে নেয়নি মেয়ের পরিবার। তাই শনিবার রাতে রুপালিকে সঙ্গে নিয়ে সরকারি গাড়িতে চেপে জলপাইগুড়ি যোগমায়া কালীবাড়িতে চলে আসে শ্রীবাস।

বোন বাড়ি থেকে পালিয়েছে শুনে বন্ধু বান্ধবদের সঙ্গে নিয়ে কালীবাড়ি চলে এসে শ্রীবাসের উপর চড়াও হয় মেয়ের দাদা। শুরু হয় বচসা। কিছুক্ষণ পর বচসা গড়ায় হাতাহাতিতে। এলোপাথাড়ি ঘুসিতে কপাল কেটে যায় শ্রীবাসের। খবর পেয়ে ছুটে আসে স্থানীয় বাসিন্দারা।

সরকারি গাড়ি নিয়ে পালিয়ে বিয়ে করতে আসা মোটেও পছন্দ হয়নি তাদের। শ্রীবাসকে আটকে খবর দেওয়া জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায়৷ পুলিশ এসে আটক করে নিয়ে যায় তাকে। কোতোয়ালি থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, রাতেই উভয় পক্ষের বাড়ির লোক ও স্থানীয় পঞ্চায়েত আসে। আলোচনা শুরু হয়।