ত্রিনিদাদ: সচিন রমেশ তেন্ডুলকর এবং ব্রায়ান চার্লস লারা। উইলো হাতে বাইশ গজে দু’জনের উজ্জ্বল উপস্থিতি অচিরেই তাঁদের প্রতিষ্ঠিত করেছে ক্রিকেটের দুই ব্যাটিং গ্রেট হিসেবে। দু’জনের ঝুলিতে রয়েছে ভুরি-ভুরি ব্যাটিং রেকর্ড। কে সেরা, তা নিয়েও রয়েছে বিস্তর দ্বিমত। কিন্তু সচিন এবং লারা যেন একে অপরের পরিপূরক। মাঠে যতোই লড়াই থাক, মাঠের বাইরে দুই জিনিয়াসের বন্ধুত্ব আজও অটুট।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ত্রিনিদাদের রাজপুত্রের পোস্ট করা একটি ভিডিও যেন ফের প্রমাণ করল সেই কথা। খুদে পুত্রসন্তান জেন্দের ব্যাটিং অনুশীলনের একটি ভিডিও ব্রায়ান লারা পোস্ট করেন সম্প্রতি। যেখানে দেখা যাচ্ছে মায়ের নির্দেশ শুনে ঘরে প্লাস্টিক ব্যাটে ব্যাটিং অনুশীলন করছে জেন্দে। সেই সময় ছেলের ব্যাটিং গ্রিপ দৃষ্টি আকর্ষণ করে ত্রিনিদাদের রাজপুত্রের। ভিডিওতে তাই ক্যাপশন হিসেবে লারা লেখেন, ‘দেখুন কীভাবে ও ব্যাটটা ধরেছে। দেখে মনে হচ্ছে ও বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান হতে চায়।’

লারা পুত্রের ব্যাটিং গ্রিপ দেখে নিজের ছেলেবেলার ব্যাটিং গ্রিপের কথা মনে পড়ে যায় মাস্টার-ব্লাস্টারের। বন্ধু লারার খুদে পুত্রসন্তানের পাশে এরপর নিজের ছেলেবেলার জনপ্রিয় একটি ছবি পোস্ট করেন মাস্টার-ব্লাস্টার। এরপর মজার ছলে সচিন লেখেন, ”আমি আরেকটা ছেলেকে চিনি যারও ব্যাটিং গ্রিপ এমনই ছিল এমনকি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খুব একটা খারাপ ফল করেনি সে।’ সচিনের ছবি পুনরায় পোস্ট করে লারা এরপর জবাব দেন বন্ধুকে। লারা সচিনকে বলেন, ‘সচিন তেন্ডুলকর আমি সেটা লক্ষ্য করেছি। পৃথিবীর তাবড়-তাবড় বোলাররা মনে করত তাঁর হাতে বুঝি সেটা তলোয়ার।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০টি শতরান সহযোগে ২০০টেস্ট ম্যাচ খেলা সচিন রমেশ তেন্ডুলকরের সংগৃহীত রানসংখ্যা ৩৪,৩৫৭। অন্যদিকে টেস্ট ক্রিকেটে এক ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বাধিক রানসংগ্রহকারী (৪০০ অপরাজিত) ব্রায়ান লারার সংগ্রহে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সংগ্রহ সর্বমোট ২২,৩৫৮ রান। শতরান ৬৩টি।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের মাটিতে রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে অংশ নিয়েছিলেন দুই কিংবদন্তি। অধিনায়ক হিসেবে একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই ব্যাটিং গ্রেট। কিন্তু কোভিড১৯-র জেরে মাঝপথেই তা বাতিল হয়ে যায়।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প