নয়াদিল্লি: ফের ভারতে বাড়ল করোনায় মৃতের সংখ্যা। তামিলনাডুতে মৃত্যু হল এক করোনা আক্রান্তের। যার জেরে দেশে সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াল ১৩-তে। এর মধ্যে দু’জন বিদেশি নাগরিক।

মাদুরাইতে করোনা পজিটিভ অবস্থায় ভর্তি ছিলেন তিনি। বুধবার ভোরে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির। জানা গিয়েছে, ডায়াবেটিস ও শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা ছিল ওই ব্যক্তির।

বুধবার সকাল পর্যন্ত ইতিমধ্যে ভারতে এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েছেন ৫৩৬ এর জন।এর মধ্যে ১১ জনের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে এসেছে। ১১ মার্চ করোনা ভাইরাসকে অতিমহামারী বলে অ্যাখ্যা দিয়েছে৷ এর পর থেকেই নড়চড়ে বসেছে প্রতিটি দেশ৷ ভারতেও জারি করা হয়েছে বাড়তি সতর্কতা৷

মঙ্গলবার মোদী নিজের ভাষণে বুধবার থেকে দেশ লকডাউনের ঘোষণা করেন। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটাও এক ধরনের কার্ফু। কেউ বাড়ি থেকে বেরতে পারবেন না। এভাবেই করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচানো সম্ভব।’

তিনি বলেন, ‘২১ দিন নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারলে ২১ বছর পিছিয়ে যেতে হবে আপনাদের।’ মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে জারি হচ্ছে এই লকডাউন। মোদী বলেন, ‘হাত জোড় করে প্রার্থনা করছি। আপনি সেইসব লোকের জন্য ভাবুন, যারা নিজেদের কর্তব্যের জন্য প্রাণের মায়া ত্যাগ করে লড়াই করছেন।’

তাঁর কথা অনুযায়ী, ‘বাড়ির বাইরে লক্ষণরেখা টেনে দিন।’ দেশের প্রত্যেকটা গ্রাম, প্রত্যেকটা গলিতে জারি থাকবে লকডাউন। সতর্ক করে তিনি বলেন, অনেক উন্নত দেশও এই ভাইরাসের কাছে হার মেনেছে। অনেক প্রস্তুতি নিয়েও একে থামানো সম্ভব হয়নি।