ফাইল ছবি

কলকাতা:  অবশেষে স্বস্তির খবর। ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী। কয়েক ঘন্টার মধ্যেই কলকাতা সহ বিস্তির্ন এলাকায় ঝড় আছড়ে পড়বে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। ঘন্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিমি বেগে এই ঝড় আছড়ে পড়তে পারে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। যদিও ইতিমধ্যে কলকাতা সহ একাধিক জায়গাতে শুরু হয়েছে বৃষ্টি।

পূর্বাভাস মতো উত্তর কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগণাতে এই কালবৈশাখী হতে পারে। মূলত অতিরিক্ত আদ্রতা এবং তাপমাত্রার জন্যে স্থানীয়ভাবে মেঘ সৃষ্টি হয়। আর সেখান থেকেই কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে এই ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। তবে এই বৃষ্টিতে সামরিক স্বস্তি মিলবে। কিন্তু এই পরিস্থিতি কেটে গেলেই ফের অস্বস্তিকর আবহাওয়া ফিরবে বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

অন্যদিকে, আজ শুক্রবার শহরের উষ্ণতম দিন ছিল। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এক ধাক্কায় পৌঁছে যায় ৪০ ডিগ্রির কাছাকাছি। যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি বেশি ছিল বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা। তবে আশঙ্কার খবর, এখনও কয়েকদিন এভাবেই গরমের জ্বালা সহ্য করতে হবে কলকাতা সহ গোটা রাজ্যবাসীকে। কারণ, পূর্বাভাস মতো, আগামী ৪৮ ঘন্টায় আর তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে ইতিমধ্যে পূর্বাভাসে জানিয়েছে আলিপুর হাওয়া অফিস।

হাওয়া অফিসের মতে, এক ধাক্কায় দু থেকে তিন ডিগ্রি বাড়তে পারে তাপমাত্রা। আর তা হলে এদিনের প্রায় ৪০ ছুঁইছুঁই তাপমাত্রাকেও ছাড়িয়ে যাবে। ইতিমধ্যে সর্বকালীন রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছে দিল্লির তাপমাত্রা। এবার সে পথেই হেঁটেই কলকাতাও সমস্ত রেকর্ডকে ছাপিয়ে যাবে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবীদরা

এই অবস্থায় এখনই কোনও বর্ষার ইঙ্গিত দিতে পাচ্ছেন না। কারণ এখনও পর্যন্ত বর্ষার গতিমুখ নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। ফলে স্বস্তি কবে ঠিক মিলতে পারে তা নিয়ে ধন্দে রয়েছেন খোদ আবহাওয়াবীদরাও। যদিও ইতিমধ্যে কেরলে প্রবেশ করেছে বর্ষা। কিন্তু মূলত সাইক্লোন বায়ুর কারণে বর্ষার স্বাভাবিক গতি আটকে যায়। আর যার ফলে অস্বস্তিকর পরিবেশ আরও তৈরি হয়েছে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা।