নয়াদিল্লিঃ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে গোটা দেশ জ্বলছে। একের পর এক রাজ্যে অশান্তির আগুন ছড়িয়ে পড়ছে। কার্যত কোনঠাসা হয়ে পড়ছে মোদী সরকার। এই অবস্থায় নাগরিকত্ব বিলে পরিবর্তনের ইঙ্গিত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। যদিও ক্রিসমাসের পরই এই বিষয়ে খোলসা করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, এমনটাই জানা গিয়েছে।

জাতীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, মেঘালয়ের মন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলার পরই মত পরিবর্তন শাহের। মূলত যেভাবে দেশজুড়ে হিংসা চলছে সেই পরিপ্রেক্ষিতেই এই মত পরিবর্তন বলে জানা যাচ্ছে।

আজ রবিবার ঝাড়খন্ড নির্বাচনী প্রচারে আসেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেখানে তিনি জানান, মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা তাঁর কাছে আসেন। সে রাজ্যের সমস্যার কথা জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কোনও কারণ নেই বলে মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রীকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অমিত শাহ। তবে, যদি কিছু সমস্যা থাকে বড়দিনের পর আলোচনা করা যাবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই আশ্বাসবাণী মিলতেই টুইট করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন কনরাড সাংমা।

রাজনৈতিকমহলের মতে, নাগরিকত্ব আইন পাশ হওয়ার পরেই জ্বলে ওঠে গোটা উত্তর-পূর্ব ভার‍ত। অসম, ত্রিপুরা সহ একের পর এক রাজ্যের জ্বলতে থাকে প্রতিবাদের আগুন। বিক্ষোভ বড় আকার নেয় মেঘালয়তেও। প্রথম দুই রাজ্যে ক্ষমতায় বিজেপি। মেঘালয়ে বিজেপি সমর্থিত সাংমার ন্যাশনাল পিপলস পার্টি।

এই অবস্থায় কার্যত গদি নড়বড়ে হচ্ছে এই সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের। আর সেই কারণেই অমিত শাহ নয়া এই বিলে বেশ কিছু পরিবর্তন করতে পারেন বলে মনে করছে রাজনৈতিকমহল।

অন্যদিকে রাজনৈতিকমহলের একাংশের মতে, এই অবস্থায় অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে ছোটেন সাংমা। অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করে তিনি আশ্বস্ত বলে জানা গিয়েছে। সাংমা জানিয়েছেন, অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদী বারবার আশ্বস্ত করছেন যে নয়া নাগরিকত্ব আইন সে সব রাজ্যের জনজাতি ভাষা, সংস্কৃতি, অস্তিত্বে প্রভাব পড়বে না।

বিস্তারিত আসছে…