কলকাতা:  বৃহস্পতিবার রাতেই আইনি বিয়ে সেরেছেন। আর আজ শুক্রবার সকাল থেকে প্রবল শ্বাসকষ্ট। সমস্ত উৎসব মাটি। প্রবল শ্বাসকষ্ট নিয়ে এই মুহূর্তে হাসপাতালে ভর্তি অভিনেতা দীপঙ্কর দে। এই মুহূর্তে অ্যাপেক্স নার্সিং হোমে ভর্তি রয়েছেন অভিনেতা। এই পরিস্থিতি অভিনেত্রী দোলন রায়ের পাশে রয়েছে গোটা পরিবার। এক সংবাদমাধ্যমকে অভিনেত্রী দোলন জানিয়েছেন, আমার কপালে সুখ একেবারেই সহ্য হয় না। কপালটাই আমার এরকম।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরেই টলিউডে দীপঙ্কর ও দোলনের সম্পর্কের কথা সবাই জানেন। বিয়ে করেননি তাঁরা, অথচ বছরের পর বছর লিভ-ইন সম্পর্কে রয়েছেন। লিভ-ইনে সুখেই ছিলেন তাঁরা। ভালোবাসায় কিংবা দায়িত্বে কোনও খামতি ছিল না কোনোদিনই। অবশেষে বিয়ে করে ফেললেন সেই জুটি। বৃহস্পতিবার বিয়ে করে ফেলেন জনপ্রিয় অভিনেতা দীপঙ্কর দে ও অভিনেত্রী দোলন রায়। হাইল্যান্ড পার্কের পাশেই এক রেস্তোরাঁয় একেবারে স্বপ্ল আয়োজনে বিয়ে করেন দু’জনে। একেবারে সেজেগুজে রেজিস্ট্রি করেন দীপঙ্কর দে ও দোলন রায়।

৭৫ বছর বয়সী দীপঙ্করের পরণে ছিল সাদা পঞ্জাবি ও ধুতি। দোলনের মাথায় লাল ফুল ও লাল বেনারসী, একেবারে বধূ রূপে অভিনেত্রী। সিঁথি ভরা সিঁদুর। জানা গিয়েছে, দীপঙ্কর দে ও দোলন রায়ের বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন নাট্যকার ও অভিনেতা ব্রাত্য বসু, সৌমিত্র মিত্র, ধ্রুব কুণ্ডু, শীর্ষ সেন ও লেখক-সাংবাদিক রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়। উপস্থিত ছিলেন দোলনের ভাই দুর্গাশিস।

১৭ বছরের বিবাহিত জীবনের স্ত্রী ও দুই মেয়েকে ছেড়ে লিভ ইন করতে শুরু করেছিলেন অভিনেত্রী দোলন রায়ের সঙ্গে। ২৬ বছর বয়সের ব্যবধানও অন্তরায় হয়নি সম্পর্কে। এভাবেই প্রায় বছর ২০ পার করেছেন দু’জনে। কিছুদিন আগেই সবাইকে চমকে দিয়ে বিয়ে সেরেছেন টলিউডের আরও এক অভিনেত্রী, জুন মালিয়া। দীর্ঘদিনের বন্ধু সৌরভ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন জুন। নভেম্বরের শেষে, শনিবার পরিবার ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবের উপস্থিতিতে হল বিয়ের অনুষ্ঠান।