সিওল:  রহস্যজনক মৃত্যু জনপ্রিয় পপ তারকা গু হারার। ঘর থেকে উদ্ধার হয় জনপ্রিয় এই তারকার মৃতদেহ। রবিবার সন্ধ্যায় সিওলের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় পপ তারকার মৃতদেহ। রহস্যজনক এই মৃত্যুকে ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এর পিছনে অন্য কোনও রহস্য রয়েছে কিনা তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে তারকার মৃত্যুতে শোকের ছায়া তাঁর অনুগামীদের মধ্যে।

দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় পপ তারকা গু হারার। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার সন্ধ্যায় তারকার মৃতদেহ উদ্ধার হয়। নিজের ঘরের দরজা আটকে দক্ষিণ কোরিয়ার ওই পপ তারকা আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে মনে করছে পুলিশ। তবে মৃত্যু নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে। আর তাই তদন্তের সূত্রে পৌঁছতে তদন্ত করছে দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দারা। তবে সবথেকে বেশি তদন্তকারীদের ভাবাচ্ছে গত ছয় মাসের একটি ঘটনা।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, গত ৬ মাস আগে আরও একবার নিজের ঘরে অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করা হয় গু হারাকে। ওই ঘটনার ৬ মাসের মধ্যে ফের এক রহস্যজনক ঘটনা। এবার মৃত্যুর মতো ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল পপ তারকার সঙ্গে। ফলে তারকার মৃত্যু কোনও সাধারণ ঘটনা না বলেই মনে করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। আর তাই প্রয়োজনে তারকার বেশ কয়েকজন আত্মীয়কেও জেরা করা হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি পুলিশের নজরে রয়েছে তারকার এক বন্ধুও।

এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক এক প্রাক্তন বন্ধুর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে কিছু সমস্যা চলছিল। তাঁদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ কিছু ভিডিও রয়েছে। আর তা নাকি ফাঁস করে দেবেন বলে বারবার নাকি পপ তারকাকে হুঁশিয়ারি দিতেন, তদন্তে এমনটাই জানা গিয়েছে। আর তা নিয়ে মানসিক টানাপোড়েনের মধ্যে ছিলেন তারকা। আর সেই ঘটনার জেরেই দক্ষিণ কোরিয়ার ২৮ বয়সী পপ তারকা আত্মহত্যা করেন বলে মনে করছেন অনেকে।