শ্রীনগর: ফের একবার সাতসকালে এনকাউন্টার জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায়। বান্দজু এলাকায় নিরাপত্তা রক্ষী ও জম্মু কাশ্মীর পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টার চলছে জঙ্গিদের।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, বাহিনীর হারে ইতিমধ্যেই ২ জঙ্গি নিকেশ হয়েছে। তবে এখনও সার্চ অপারেশন চলছে বলে জানিয়েছে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ।

জম্মু কাশ্মীরে একদিকে যখন নিরাপত্তা বাহিনীকে জঙ্গিদের দমন করতে হচ্ছে। অন্যদিকে একই ভাবে কড়া জবাব দিতে হচ্ছে পাক সেনাদেরও। চলতি বছরে বারেবারেই সীমান্তে যুদ্ধ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে পাক সেনা।

দাবি করা হচ্ছে, জঙ্গিদের প্রবেশ করার ক্ষেত্রে সুবিধা করে দিতেই গুলি ছুঁড়ে ভারতীয় সেনাকে ব্যস্ত রাখার পুরনো পদ্ধতি নিয়েছে পাকিস্তান।

চলতি বছরে বারবার সামনে আসছে জঙ্গি অনুপ্রবেশের ঘটনা। লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষের জেরে কাশ্মীরের উপর চাপ বাড়ানো হবে, হিংসা ছড়াতে আরও জঙ্গি অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা করবে পাকিস্তান, ঠিক এই ভাষাতেই সতর্ক করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের পুলিশ প্রধান দিলবাগ সিং।

তাঁর বক্তব্য, করোনা পরিস্থিতির সময় থেকেই টানা অনুপ্রবেশ চালিয়েছে পাকিস্তান, আমাদের অতিরিক্ত সতর্কতা নিয়ে এই প্রচেষ্টা ব্যর্থ করতে হবে। রিপোর্টে জানা গিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরের লাইন অফ কন্ট্রোলের কাছে লঞ্চপ্যাডে ৩০০ জন জঙ্গি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে হিংসা ছড়াতে অনুপ্রবেশের জন্য তৈরি আছে।

 

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ