এথেন্স: ৬.৬ রিখটার স্কেলে ভূমিকম্প আঘাত হানে গ্রিস ও তুরস্কে। স্থানীয় সময় অনুসারে শুক্রবার ১১ টা ৫০ নাগাদ এই কম্পন অনুভূত হয়। ভূমিকম্পের শক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই গ্রিসে ধাক্কা দেয় সুনামি।

গ্রিসের সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, ভূমিকম্পের জেরে সামোসের পূর্ব আইজিয়ান সাগর দ্বীপে একটি ছোট সুনামি হয়। বেশ কয়েকটি বিল্ডিং ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সুনামির ফলে জল রাস্তা অবধি উঠে আসতে দেখা গিয়েছে।

হঠাৎ এই প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের জেরে তুরষ্কে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২০০ জন। তুরস্কের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ৬ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন – রিখটার স্কেলে ৬.৬ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প, প্রবল আতঙ্কে রাস্তায় মানুষ

তুর্কি সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, আপাতত ৭০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও উদ্ধার কাজ চলছে পুরোদমে। ভূমিকম্প টের পাওয়ার পরেই আতঙ্কে ঘর বাড়ি ছেড়ে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন তুরস্কের উপকূলবর্তী শহর ইজমিরের বাসিন্দারা। ইজমিরের বায়রাকলি ও বোর্নোভা জেলায় ৬ টি বাড়ি ধসে পড়েছে বলে জানা গিয়েছে।

এজিয়ান এবং মারমারা এলাকায় কম্পন অনুভূত হয়েছে। ইস্তানবুলের গভর্নর জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে কোনও ক্ষয় ক্ষতির খবর নেই। প্রথম ভূমিকম্পের পরে উভয় দেশেই আফটার শক অনুভূত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

এখনও পুরোদমে চলছে উদ্ধারকাজ। টিআরটি টেলিভিশন দেখিয়েছে, একটি সাতৎলা ভেঙে পড়া বিল্ডিং থেকে বের করে আনা হচ্ছে আটকে থাকা মানুষকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কয়েকটি সুনামির ভিডিও ছড়িয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে জল ঢুকে পড়েছে শহরের রাস্তায়। আতঙ্কিত মানুষজন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।