নয়াদিল্লি: করোনা আক্রান্ত হলেন বলি অভিনেতা তথা রাজনীতিবিদ সানি দেওল। বুধবার সকালে নিজেই করোনা পজিটিভ হওয়ার কথা টুইট করে জানিয়েছেন ৬৪ বছরের এই অভিনেতা। বর্তমানে তিনি আইসোলেশনে আছেন। তাঁর ‘শরীর ভালো’ আছে বলে জানিয়েছেন।

একই সঙ্গে গত দু’দিনে যারা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের সকলকে আইসোলেশনে থাকতে এবং করোনা পরীক্ষা করাতে অনুরোধ করেছেন বিজেপি সাংসদ।

হিমাচল প্রদেশের স্বাস্থ্য সচিব অমিতাভ অবস্থি সানির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেন। বর্তমানে কুলুতে রয়েছেন অভিনেতা-সাংসদ। সম্প্রতি কাঁধে অস্ত্রোপচারের পর বন্ধুবান্ধব নিয়ে দিন কয়েকের ছুটিতে কুলু এসেছিলেন তিনি। মুম্বই রওনা দেওয়ার ঠিক আগের মুহূর্তে করোনা ধরা পড়ল বলিউড অভিনেতার। ফলে আপাতত আরও কিছুদিন কুলুতেই কাটাতে হবে তাঁকে।

গত বছর পাঞ্জাবের গুরুদাসপুরের বিজেপি প্রার্থী হিসাবে প্রথম লোকসভা নির্বাচনে জিতেছিলেন সানি দেওল। তিনি কংগ্রেস সাংসদ সুনীল জখরকে ত্রিমুখী লড়াইয়ে হারান। সেবার ময়দানে ছিলেন আম আদমি পার্টিও।

সানি দেওল তার পরিবারে রাজনীতিতে যোগ দেওয়া তৃতীয় ব্যক্তি। তাঁর বাবা ধর্মেন্দ্র বিজেপির সাংসদ ছিলেন। তাঁর সৎ মা হেমা মালিনীও বিজেপির সঙ্গে সক্রিয় ভাবে জড়িয়ে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।