নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: উত্তর দিনাজপুরে তৃণমূল নেতাকে খুনের অভিযোগ উঠেছে৷ খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ৷ জেলা পরিষদ সদস্যার স্বামীকে খুন৷ ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছেছে৷ এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে৷ ময়নাতদন্তে দেহ পাঠানো হয়েছে৷ তবে এটি খুন না আত্মহত্যা সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷

এদিকে, ফের দুষ্কৃতী দিয়ে হামলার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে৷ উত্তর ২৪ পরগনার টিটাগড় থানা এলাকার অন্তর্গত শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের নভারন্ড গ্রামে তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে দুষ্কৃতী হামলাতে সরাসরি তোপ দাগা হয় বিজেপির বিরুদ্ধে৷ অভিযোগ, ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের সক্রিয় তৃণমূল কর্মী কিশোর সমন্তের বাড়িতে দুষ্কৃতীরা আগ্নেয়স্ত্র নিয়ে চড়াও হয়ে হামলা করে৷ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা৷

খবর পেয়ে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷ তৃণমূল কর্মী কিশোর সামন্তের অভিযোগ, বুধবার গভীর রাতে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা যখন ঘুমোচ্ছিলেন, সেই সময় তার বাড়ির সামনে বাইকে করে আসে ১৫-১৬ জনের দুষ্কৃতীর দল৷ তারা এসেই হাঁকডাক শুরু করে দেয়৷

কিশোরবাবু জানিয়ে দেন, তিনি অসুস্থ বাইরে বের হবে না৷ তাঁর হার্টের রোগ আছে৷ এই কথাতে বাইরে থাকা ওই ১৫-১৬ জন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে৷ তাদের নেতৃত্বে ছিল শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বিজেপির বুথ সভাপতি বৈদ্যনাথ কর্মকার৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।