প্রতীকী ছবি

কলকাতা: গত ২৪ ঘন্টায় বাংলায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৭ জনই কলকাতার বাসিন্দা৷ নতুন করে আক্রান্ত ৩৪০ জন৷ এর মধ্যে শুধু কলকাতারই ৯৯ জন৷

শহরে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও,গত ২৪ ঘন্টায় একজনও হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাননি৷ সারা রাজ্যে উত্তর দিনাজপুর, ঝাড়গ্রাম ছাড়া বাকি সব জেলাতেই নতুন করে আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে৷ অর্থাৎ কলকাতাসহ ২৩ জেলার ২১ জেলাতেই বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যা৷

বুধবারের রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে প্রকাশ, মঙ্গলবার থেকে বুধবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৩৪০ জন৷ এই নিয়ে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৬,৫০৮জনে৷ এর মধ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৫৮৩ জন৷

এছাড়া আরও ১০ জনের নতুন করে মৃত্যু হয়েছে৷ ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩৪৫ জনে৷ এর মধ্যে কো মর্বিডিটির কারণে মৃত্যু হয়েছে ৭২ জনের৷ করোনায় ২৭৩ জন৷

নতুন করে মৃত ১০ জনের মধ্যে ৭ জনই কলকাতার বাসিন্দা৷ বাকি তিন জনের একজন দক্ষিণ ২৪ পরগণা৷ একজন হাওড়ার৷ অপরজন দার্জিলিং এর বাসিন্দা৷ সারা রাজ্যে উত্তর দিনাজপুর, ঝাড়গ্রাম ছাড়া বাকি সব জেলাতেই নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে৷

আক্রান্ত ও মৃতের দিক থেকে কলকাতাই ফাস্টবয়৷ আর এই প্রথম স্থানে থাকাটাই উদ্বেগজনক৷ কলকাতায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৯ জন৷ যা অন্যান্য জেলার তুলনায় সর্বোচ্চ৷ ফলে কলকাতায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২,৩৯৪ জনে৷

গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ২২৯৫ জনে৷ গত ২৪ ঘন্টায় কলকাতার একজনও হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাননি৷ ফলে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার সংখ্যাটা যা ছিল তাই আছে৷ অর্থাৎ শহরের ৯৭০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন৷

অন্যদিকে কলকাতায় মৃতের সংখ্যাটা বেশ উদ্বেগজনক৷ গত ২৪ ঘন্টায় শহরে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৮৷ নতুন ৭ জন নিয়ে কলকাতাতেই মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২২৯ জন৷ যেখানে কলকাতা সহ সারা রাজ্যে মৃতের সংখ্যা মোট ৩৪৫ জন৷ এর মধ্যে কলকাতা বাদে বাংলায় মৃতের সংখ্যা মাত্র ১১৬ জন৷

গত ২৪ ঘন্টায় ৯,৪৯৯ টি টেস্ট হয়েছে৷ এ পর্যন্ত মোট টেস্ট হয়েছে ২ লক্ষ ৩২ হাজার ২২৫ জন৷ গতকাল সংখ্যাটা ছিল ২ লক্ষ ২২ হাজার ৭২৬ জনে৷

বর্তমানে রাজ্যে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে ৪১টি পরীক্ষাগারে পরীক্ষা করা হচ্ছে। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে ৩,৫৮৩ জনের । রাজ্যের মোট ৬৯ টি কোভিড হাসপাতলে ৮৭৮৫ টি বেড রয়েছে । আইসিইউ বেড আছে ৯২০টি। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯২টি।

বর্তমানে ৫৮২ টি সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আছেন ১৮ হাজার ৫২৫ জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ২৮৭ জন৷ গতকাল সরকারি কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন ১৭ হাজার ৮০৪ জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন ১ লক্ষ ৪৬ হাজার ৫৩৮ জন৷

নতুন করে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ১৭০ জন৷ ফলে মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ হাজার ৫৮০ জন৷ শতাংশের হিসেবে যা ৩৯.৬৪ শতাংশ৷

মঙ্গলবারের রাজ্য সরকারের তথ্য বিগত দিনের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছিল৷ অর্থাৎ বাংলায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ছিল ৩৯৬ জন৷ সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬১৬৮ জনে৷ এর মধ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩৪২৩ জনে৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প