কলকাতা: করোনা ভাইরাসের মোকাবলিয়া অবশেষে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল ভারত সরকার৷ রবিবার থেকেই দেশে আর নামবে না বিদেশ থেকে আসা বিমান৷ আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা আগামী ৭ দিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত অসামরিক বিমান পরিবহণ দফতরের৷

অনেকদিন ধরেই চেষ্টা চলছিল, অবশেষে সেই সিদ্ধান্ত নিলে কেন্দ্রীয় সরকার৷ বিদেশ থেকে আর আসবেন কোনও বিমান৷ আগামী এক সপ্তাহ আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত ভারত সরকারের৷ রবিবার সকালে ‘জনতা কার্ফু’র চালুর পরই গুরুত্বপূর্ণ এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷

মারণ এই ভাইরাস ভারতে তৃতীয় সপ্তাহে প্রবেশ করেছে৷ অর্থাৎ কমিউনিটি স্ট্রেজে রয়েছে৷ ভারতে করোনাভাইরাসের প্রবেশ রয়েছে বিদেশ থেকেই৷ সর্বশেষ খবর অনুযায়ী দেশের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩১৫৷ মারা গিয়েছেন চার জন৷ তবে আক্রান্তের অধিকাংশই এসেছেন বিদেশ থেকে৷

করোনা ভাইরাসের প্রকোপের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১৪ হাজার আন্তর্জাতিক বিমানে করে প্রায় ১৫ লক্ষ মানুষ ভারতে এসেছেন৷ এঁদের মধ্যে প্রায় ৫৩ হাজার ব্যক্তিকে চিকিৎসার জন্য দেশের বিভিন্ন হাসাপাতালে নিয়েও যাওয়া হয়েছে৷ যাঁদের উপসর্গ রয়েছে এমন ব্যক্তিদের হাসপাতালে ভর্তি করে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে৷ বাকি সাড়ে ১৪ হাজার ব্যক্তিকে বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের পর বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে৷

রবিবার পর্যন্ত দেশে আন্তর্জাতিক বিমান নামার কথা থাকলেও ভয়াবহতার কথা মাথার রেখে একদিন আগে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার৷ কারণ শনিবার দেশে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাফে ১০০ বেড়েছে৷ কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে, যে কোনও দেশে এই মারণ ভাইরাস প্রবেশের তৃতীয় সপ্তাহে কমিউনিটিতে ছড়িয়ে পড়ে৷ সুতরাং এটা সবচেয়ে বড় চিন্তার কারণ৷

রাজ্যে এখনও পর্যন্ত চার জনের শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে৷ এঁদের মধ্যে তিনজনই বিদেশ থেকে এসেছেন৷ দু’ জন ইংল্যান্ড এবং একজন স্কটল্যান্ড থেকে৷ অপর যে ব্যক্তির শরীর এই মারণ ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে তাঁর কোনও বিদেশ ভ্রমণের ইতিহাস নেই৷ এটাই আশঙ্কার কারণ বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷ মনে করা হচ্ছে তিনি কমিউনিটি স্ট্রেজের শিকার৷