নয়াদিল্লি: দেশে ফের লাফিয়ে বাড়ল করোনা সংক্রমণ। শেষ ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হলেন, ২৮ হাজার ৪৯৮ জন। নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৫৫৩ জনের।

নতুন সংক্রমণের জেরে দেশে করোনা আক্রান্তের স০ঙ্খ্যা পেরিয়ে গেল ৯ লক্ষ। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ৭১ হাজারের বেশি মানুষ। অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ৩ লক্ষ ১১ হাজার ৫৬৫ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ২৩ হাজার ৭২৭ জনের।

তবে আশার কথা হল, একদিকে যেমন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তেমনই বাড়ছে সুস্থতার হার। সোমবার পর্যন্ত গোটা দেশে আরোগ্যের হার ৬৩.০২ শতাংশ। এই ইস্যুতে ১৯টি রাজ্যের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। যে সব রাজ্যে আরোগ্যের হার বেড়েছে তাদের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে।

অন্যদিকে রবিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অমিত শাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে যে যুদ্ধে দেশবাসী নেমেছে, তা সফল হবেই। করোনার বিরুদ্ধে সাফল্য আসবে। পরিস্থিতি এখনও হাতের বাইরে যায়নি। ১৩০ কোটি মানুষের দেশে গণতান্ত্রিক পরিকাঠামো বজায় রেখে করোনার সঙ্গে লড়াই করা, কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। তা ভারত দেখিয়ে দিয়েছে।

অন্যদিকে করোনা পরিস্থিতি দিনে দিনে আরও খারাপ থেকে খারাপতর হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন বা হু। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আশঙ্কা দেশগুলি যদি স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন না করে তবে বিশ্বজুড়ে এই করোনা মহামারির অবস্থা আরও খারাপ হয়ে পড়তে পারে।

রয়টার্সের একটি সমীক্ষা বলছে, করোনা সংক্রমণে সারা বিশ্বে আক্রান্ত প্রায় ১৩ মিলিয়নের বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৫ লক্ষের বেশি মানুষের।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ