শ্রীনগর: বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের মালবাগে শুরু হয়েছে এনকাউন্টার। ভারতীয় সেনার সঙ্গে জঙ্গিদের গুলির লড়াইয়ে শহিদ হয়েছেন এক সিআরপিএফ হেড কনস্টেবল এবং ভারতের গুলিতে খতম হয়েছে এক জঙ্গি, এমনটাই জানা যাচ্ছে।

এদিন সন্ধ্যায় শ্রীনগরের বাইরের এলাকা লাগোয়া মালবাগে এই ঘটনা ঘটেছে। গোপন সুত্রে খবর খবর পেয়ে তল্লাশি অভিযান শুরু করা হয়, সেখানেই এই ঘটনা ঘটেছে।

তল্লাশি অভিযান চলাকালীন জঙ্গিরা শূন্যে গুলি চালায় এবং পরে সেনাবাহিনীকে উদ্দেশ্য করেও গুলি চালানো হয়েছে, এমন তথ্যই দিয়েছেন এক আধিকারিক।

প্রথমে গুলিতে সিআরপিএফ জওয়ানরা আহত হয়েছেন এবং পরে তাঁদের ৯২ বেস আর্মি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদের মধ্যে একজনকে হেড কনস্টেবল কুলদীপ উরাওহা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

প্রথমে গুলিতে সিআরপিএফ জওয়ানরা আহত হয়েছেন এবং পরে তাঁদের ৯২ বেস আর্মি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদের মধ্যে একজনকে হেড কনস্টেবল কুলদীপ উরাওহা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

যে জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে, এখনও অবধি তার পরিচয় পাওয়া যায়নি বলেই অফিশিয়াল সূত্রের খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে সেনা জানাচ্ছে আরও জঙ্গি সেখানে লুকিয়ে রয়েছে।

এখনও অবধি সেখানে নাকাতল্লাশি চলছে বলেই জানা যাচ্ছে। গোয়েন্দা সূত্রের খবর, সেখানে মোট তিনজন জঙ্গি লুকিয়ে থাকার সম্ভাবনা প্রকাশ করেছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।