নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় পোটোকল ভেঙে বড়সড় বিতর্কের মুখে বক্সার মেরি৷ বিদেশ থেকে ফিরে কোয়ারেন্টাইনে না-থেকে রাষ্ট্রপতির আমন্ত্রণে ব্রেকফাস্টে হাজির হয়ে বিতর্কের মুখে পড়লেন ভারতের কিংবদন্তি ভারতীয় বক্সার৷

সারবিশ্বে থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস৷ ইতিমধ্যেই এই মারণ ভাইরাস কেড়ে নিয়েছেন বিশ্বের ১১ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ৷ চিন ও ইতালিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গিয়েছে৷ মারণ এই চিনা ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা পেতে তটস্ত বিশ্ব৷ ইতিমধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তথা WHO-র এটা মহামারি অ্যাখ্যা দিয়েছে৷ করোনাভাইরাস রুখতে একগুচ্ছ গাইডলাইন জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা৷ কিন্তু এই নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে পোটোকল ভারতীয় এই বক্সার৷

করোনাভাইরাস যাতে সর্বত্র ছড়িয়ে না-পরে সে জন্য উপসর্গ রয়েছে এমন ব্যক্তি এবং বিদেশ থেকে ফিরলে তাঁদেরকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকা নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর৷ কিন্তু এই নিময় কার্যকর করেছে প্রতিটি রাজ্য৷ কিন্তু এই নিয়মের তোয়াক্কা না-করে পোটোকল ভেঙে বিতর্কে জড়ালেন মেরি কম৷ ১৩ মার্চ জর্ডন থেকে ফিরে ১৮ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে না-গিয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের দেওয়া ব্রেকফাস্টে যোগ দেন অলিম্পিকে পদকজীয় ভারতীয় বক্সার৷

জর্ডনের রাজধানী আমনে এশিয়া-ওসিয়েনিয়া অলিম্পিক কোয়ালিফায়ারে অংশ নিয়েছিলেন মেরি৷ সেখান থেকে ১৩ মার্চ দেশে ফিরেছেন মণিপুরের এই কিংবদন্তি বক্সার৷ সচেতন নাগরিক হিসেবে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকা উচিত ছিল মেরির৷ কিন্তু তিনি তা না-করে ১৮ মার্চ তথা বুধবার রাষ্ট্রপতির ব্রেকফাস্টের আমন্ত্রণে যোগ দেন ভারতীয় এই মহিলা বক্সার৷

প্রেসিডেন্টের টুইটার হ্যান্ডেলে মেরি কমের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির যে ছবি আপলোড করা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে রাষ্ট্রপতি ভবনে পার্লামেন্টের অন্য সদস্যরাও রয়েছেন৷ এই ছবিতে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, “President Kovind hosted Members of Parliament from Uttar Pradesh and Rajasthan for breakfast at Rashtrapati Bhavan this morning”৷ অর্থাৎ রাষ্ট্রপতি ভবনে উত্তরপ্রদেশ ও রাজস্থানের সাংসদদের প্রাতরাশের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি৷

একই দিনে বিজেপি-র ল-মেকার দুশয়ন্ত সিং-কে দেখা গিয়েছে করোনা আক্রান্ত বলিউডের গায়িকা কণিকা কাপুরের সঙ্গে৷ যিনিও ছিলেন রাষ্ট্রপতি ভবনে৷ এটা জানার পর বিজেরি’র ল-মেকার সেলফ-কোয়ারেন্টাইনে চলে গিয়েছেন৷ মেরি কমের এই দায়িত্বজ্ঞানহীনতাকে দুষেছেন অনেকেই৷ বক্সিং কোচ স্যান্তিয়াগো নিয়েভা-সহ জর্ডনে এশিয়া-ওসিয়েনিয়া অলিম্পিক কোয়ালিফায়ারে অংশ নেওয়া ভারতীয় বক্সারদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক৷

নিয়েভা জানান, ‘আমাদের ১০ দিন কোয়েরেন্টাইনে থাকার পরিকল্পনা ছিল৷ কিন্তু এখন আমরা ১৪ দিনের জন্য কোয়েরেন্টাইনে থাকব৷ তবে ১০ দিন পর আমি ওদের নিয়ে ট্রেনিং করব৷ তবে এর মধ্যে সমস্যার সমাধান না-হলে যতদিন সম্ভব আমাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে৷’

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।