স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: মালদহের সুজাপুরে প্লাস্টিক কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ। মৃত ৫। আহত ৫। কারখানার রিসাইকেল বিন মেশিন থেকে বিস্ফোরণ হয় বলে প্রাথমিক ধারণা।

পুলিশ জানিয়েছেন, মৃতদের নাম, প্রমিলা মন্ডল(৪৫), জুলি বেওয়া(৩৫), জুলেখা বিবি(২৫), আবু শাহেদ(৪৫), মুসা শেখ(৫০)। মৃতেরা প্রত্যেকেই এখানে শ্রমিকের কাজ করতেন।

বৃহস্পতিবার সকালে জনবহুল মালদহের কালিয়াচক থানার সুজাপুর এলাকায় এই বিস্ফোরণের শব্দে কেঁপে ওঠে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রতিবেশী বেশ কয়েকজন আহত হয়ে পড়ে আছেন এবং ঘটনাস্থলেই ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃতদেহগুলি ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে কালিয়াচক থানার পুলিশ। ঠিক এর আগে একই কায়দায় এ ধরনের বিস্ফোরণে জুলাই মাসে এক টোটো চালক এর মৃত্যু হয়েছিল মালদহ শহরে।

পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, কারখানার রিসাইকেল বিন মেশিনে বিস্ফোরণের ফলে এ ধরণের ঘটনা ঘটেছে।

জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, “ঘটনাস্থলে ফরেনসিক টিম আসছে। পাশাপাশি গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে।”

যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে এই ঘটনার জন্য এন আই এ তদন্তের দাবি করা হয়েছে। উত্তর মালদহের বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন, “এ ধরনের ঘটনা বিস্ফোরক মজুদ না ডাকলে সম্ভব নয়। রাজ্য পুলিশের দ্বারা এ তদন্ত হবে না। এজন্য এনআইএ কে প্রয়োজন।”

এদিকে বিস্ফোরণের ঘটনায় মৃতদের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয় রাজ্য সরকারের কাছে আবেদন করলেন সুজাপুরের কংগ্রেস বিধায়ক ইশা খান চৌধুরী। পাশাপাশি তিনি ঘটনার উচ্চ পর্যায়ের তদন্তেরও দাবি করেন।

রাজ্যের প্রাপ্ত মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে মেশিন থেকেই বিস্ফোরণ হয়েছে গোটা ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।