আগামী ২৯ জানুয়ারি ভারত বনধের ডাক দিল শাহিন বাগের বিক্ষোভকারীরা। জানুয়ারি মাসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বনধ হচ্ছে। কিছুদিন আগেই বামেদের ডাকা বনধ পালিত হয়ে দেশ জুড়ে।

কেন্দ্রের শ্রমিক বিরোধি নীতির বিরোধিতা করে দশটি দল ভারতব্যাপী বনধের ডাক দিয়েছিল। ১২ দফা দাবি যেখানে বেতনের অসমতা, ঠিকাদার, চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের জন্য ১২ দফা দাবি নিয়ে এই ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল।

প্রায় এক মাস ধরে সিএএ ও এনআরসি-র প্রতিবাদে বিক্ষোভ চলছে শাহিন বাগে। রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছে। মঙ্গলবারই তাঁরা দিল্লির গভর্নরের সঙ্গে দেখা করেন। আর সেখানে তাঁদের কথা শোনা হয়েছে বলে জানিয়েছে ওই প্রতিনিধি দল। বিক্ষোভ চললেও এবার থেকে স্কুল বাস যাওয়ার জায়গা করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। মোট আট মহিলা এদিন দেখা করেন গভর্নরের সঙ্গে।

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, এই ২৯ জানুয়ারি ভারত বনধের ডাক দিয়েছে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সিনাল ল বোর্ডের সেক্রেটারি মৌলানা সাজ্জাদ নোমানি। সোমবারই দেশের সব মানুষকে এই বনধে অংশ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান তিনি। সূত্রের খবর, এই বনধকে সমর্থনের ডাক দিয়েছেন শাহিন বাগের বিক্ষোভকারীরা।

উল্লেখ্য, শাহিন বাগের সমর্থনে কলকাতার রাস্তাতেও চলছে বিক্ষোভ। ২৫ জনকে নিয়ে পার্ক সার্কাস ময়দানে শুরু হয়েছিল এনআরসি, সিএএ বিরোধী আন্দোলন। দিনে দিনে সেই সংখ্যাটা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। প্রায় ১৫ দিন ধরে চলছে সেই বিক্ষোভ।