ঢাকা: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফর ঘিরে বিক্ষেভ আন্দোলনে পরিস্থিতি রক্তাক্ত। বিভিন্ন সংগঠন ও হেফাজতে ইসলামের বিক্ষোভে চট্টগ্রাম ও ঢাকা উত্তপ্ত। একাধিক বিক্ষোভকারী পুলিশের গুলিতে নিহত। বিক্ষোভ ছড়িয়েছে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায়। তবে চট্টগ্রামের পরিস্থিতি চিন্তাদনক। এখানে চার বিক্ষোভকারী গুলিতে মৃত।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী ‘মুসলিম বিরোধী’ এই অভিযোগে বাংলাদেশের ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম নরেন্দ্র মোদীর সফরের বিরেধিতা করে ঢাকা সহ দেশের সর্বত্র বিক্ষোভের ডাক দেয়।হেফাজতের ঘাঁটি চট্টগ্রামে দিনভর ছিল উত্তেজনা। পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ হয় দফায় দফায়। বিক্ষোভ সামাল দিতে পুলিশ গুলি চালায়। এতে চার জনের মৃত্যুর সংবাদ এসেছে। জখম অনেকে। মৃত প্রত্যেকেই সংগঠনের সমর্থক এমনই দাবি হেফাজতে ইসলামের। উগ্র ধর্মীয় এই সংঘটন আগেও হিংসাত্মক আন্দোলন ছড়ানোর ঘটনায় অভিযুক্ত।

গুলি চালানোর প্রতিবাদে শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকালে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম। রবিবার তারা হরতাল পালন করবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সফরের আগে থেকেই রাজধানী ঢাকায় বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন মোদী বিরোধী মিছিল করে। সেই মিছিলে হামলায় অভিযুক্ত সরকারে থাকা দল আওয়ামী লীগের শাখা সংগঠন ছাত্র লীগের কর্মী সদস্যরা বলে অভিযোগ। এই বিক্ষোভ বিভিন্ন জেলা উপজেলায় ছড়িয়েছে। বিক্ষোভকারী সংগঠনগুলির অভিযোগ, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা সদর্থক নয়।

আওয়ামী লীগের দাবি, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে বানচাল করতে বন্ধু রাষ্ট্র ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সফরে দাগ ছিটিয়ে দেশের ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চলছে। অন্যদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার যুদ্ধে ভারতের ভূমিকা ঐতিহ্যবাহী। সেদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফর হবে কড়া নিরাপত্তায়।

শুক্রবার ঢাকায় পৌঁছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদী বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। তাঁকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে মোদী বলেন,১৯৭১ সালে তখন তাঁর বয়স কুড়ির কোঠায়। তখন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনে জেলে যাওয়ার সুযোগও হয়েছিল। তাঁর এই মন্তব্যে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে দুই দেশে।

ভারতীয়রা হাইকমিশন জানাচ্ছে, শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী যাবেন খুলনা। সেখানে ওড়াকান্দি তে মতুয়া সমাজের ধর্মগুরুর পৈত্রিক ভিটে দর্শন করবেন। কূটনৈতিক মহলের ধারণা, বাংলাদেশের লাগোয়া পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটে লক্ষ লক্ষ মতু়য়া ভোটব্যাংক টানতে সফরে ওড়াকান্দি দর্শন বেছে নিয়েছেন মোদী। তাঁর সফর সূচিতে আরও থাকছে বিখ্যাত যশোরেশ্বরী কালী মন্দির।

এদিকে মোদীর সফরের বিরোধিতায় বাংলাদেশের বি়ভিন্ন প্রান্তে ছড়াচ্ছে বিক্ষেভ। চট্টগ্রামের পরিস্থিতি রীতিমতো গরম। সেখানে পুলিশ ও হেফাজতে ইসলাম সমর্থকদের সংঘর্ষের জেরে রক্তাক্ত অবস্থা।

মোদী বিরোধী বিক্ষোভে ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় আগেই সংঘর্ষ হয়। তার জের ধরে হেফাজতে ইসলামের প্রধান কেন্দ্র চট্টগ্রামের হাটহাজারী রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। মাদ্রাসার ছাত্ররা হাটহাজারী থানা, ডাকবাংলোতে ভাঙচুর চালায়। এই সময় পুলিশের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসার তিন ছাত্র ও একজন পথচারী নিহত হয়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.