নয়াদিল্লি: প্যাংগং লেকের তীরে সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে ১০০ থেকে ২০০ ‘ওয়ার্নিং শটস’ চালিয়েছিল ভারত ও চিনা সেনা। সূত্রের বরাত দিয়ে একথা জানাচ্ছে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

খবর মোতাবেক, ভারতীয় সেনারা চিনা বাহিনীকে উপেক্ষা করে যখন পোস্ট বানাচ্ছিল তখন এই ঘটনা ঘটে। ভারত বর্তমানে ফিঙ্গার ৩-৪ এর কাছাকাছি উচ্চতম স্থানে ঘাঁটি গেড়ে রয়েছে।

ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং-ই যেদিন মস্কোয় স্বাক্ষাৎ করেন তার কয়েকদিন আগে এই ঘটনা ঘটে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ তিন মাস ধরে এলএসি সীমান্তে উত্তেজক পরিস্থিতি জারি রয়েছে। সামরিক ও কূটনৈতিক পর্যায়ে উভয় পক্ষ পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার কথা বললেও শেষ পর্যন্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি। এমনকি গুলিও চলে। চিনের দাবি, ভারতীয় সেনা লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল পার করে গুলি চালিয়েছে। ওয়ার্নিং শট হিসেবে ওই গুলি চালিয়েছিল বলে দাবি চিনের।

যদিও বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং-ই এর স্বাক্ষাৎকারের পর উভয় দেশই পাঁচ দফার যৌথ বিবৃতি জারি করে। বলা হয়, উভয় দেশের নেতাদের উচিৎ আলোচনা করা এবং একটি মতভেদকে বিবাদে পরিণত করা উচিৎ না। সীমান্তের বর্তমান পরিস্থিতি উভয় দেশের পক্ষে নয়, এক্ষেত্রে দুই দেশের বাহিনী নিজেদের মধ্যে কথাবার্তা চালিয়ে যাবে এবং সীমান্তের পরিস্থিতি সংশোধন করার জন্য চেষ্টা হবে। উভয় দেশই ভারত ও চিনের সীমান্ত নিয়ে হওয়া চুক্তি অনুসরণ করবে এবং শান্তি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করবে। সীমান্ত বিরোধ নিয়ে বিশেষ প্রতিনিধিদের মধ্যেও আলোচনা অব্যাহত থাকবে। শান্তি প্রতিষ্ঠার পরে উভয় দেশই তাদের সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করবে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।