সাও পাওলো: গোড়ালির চোটে ২০১৯ দলের কোপা আমেরিকা জয়ের শরিক হতে পারেননি। তবে ২০২১-এ এসে দলের খেতাব ধরে রাখার গুরুদায়িত্ব বর্তাল নেইমারের(Neymar Jr) কাঁধে। কারণ পিএসজি(PSG) তারকার অধিনায়কত্বেই ২০২১ কোপা আমেরিকায়(Copa America 2021) খেতাব ধরে রাখার অভিযান শুরু করছে ‘সেলেকাও'(Selecao)। টুর্নামেন্টের ভেন্যু কিংবা টুর্নামেন্ট আয়োজন হওয়া নিয়ে একের পর এক চমক থাকলেও বৃহস্পতিবার ঘোষিত ব্রাজিল(Brazil) দলে কোনওরকম চমক নেই।

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বকাপের যোগ্যতা-অর্জন পর্বে জোড়া ম্যাচে জয় পাওয়া স্কোয়াড কার্যত অপরিবর্তিত রেখেই কোপার স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন ব্রাজিল কোচ তিতে(Tite)। কেবল রদ্রিগো সাইও(Rodrigo Caio)-র পরিবর্তে চোট সারিয়ে সুস্থ হওয়া অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভার(Thiago Silva) অন্তর্ভুক্তি হয়েছে স্কোয়াডে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে(UCL) চোট পেয়ে ইকুয়েডর(Ecuador) এবং প্যারাগুয়ের(Paraguay) বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারে(WC Qualifiers) ছিলেন না চেলসি(Chelsea) ডিফেন্ডার।

চোটের কারণে ২০১৯ কোপা জয়ী দলের দুই গুরুত্বপূর্ণ সদস্যকে এবারে পাচ্ছে না ‘সেলেকাও’। এঁরা হলেন সাও পাওলো ফুটবল ক্লাবের দানি আলভেস(Dani Alves) এবং বার্সেলোনার ফিলিপ কুটিনহো(Philippe Coutinho)। আলভেস আবার গতবারের অধিনায়কও বটে। এদিকে সেদেশের সুপ্রিম কোর্ট থেকে কোপা আমেরিকা আয়োজনের সবুজ সংকেত পেয়ে গেল বোলসোনারো সরকার। তবে কোপা আমেরিকা যাতে ‘কোপাভাইরাস’ না হয়ে ওঠে সেজন্য ব্রাজিল সরকারকে বাড়তি নিরাপত্তা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, অতিমারিতে বিপর্যস্ত ব্রাজিল শেষ অবধি কোপা আয়োজনের দায়িত্ব নেওয়ায় প্রাথমিকভাবে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নেইমাররা। করোনার জেরে দ্বিতীয় সর্বাধিক মৃত্যু হওয়া দেশে কোপা আয়োজন করা মানে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য নিয়ে ঝুঁকি নেওয়া। এমনই অভিযোগে বোলসোনারো সরকারের বিরোধীতায় টুর্নামেন্ট বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন ব্রাজিল ফুটবলাররা। তবে শেষ মুহুর্তে মঙ্গলবার তাঁদের সুর কিছুটা নমনীয় হয় এবং তারা টুর্নামেন্ট অংশগ্রহণের কথা ঘোষণা করেন। তবে যৌথ বিবৃতিতে ব্রাজিল ফুটবল দল জানিয়ে দেয়, তারা এখনও টুর্নামেন্টের বিরোধী। জার্সির সম্মানের কথা ভেবেই তারা অংশগ্রহণ করছে।

একনজরে ব্রাজিলের ঘোষিত স্কোয়াড:

  • গোলরক্ষক: অ্যালিসন, এডেরসন, ওয়েভারটন।
  • ডিফেন্ডার: আলেক্স সান্দ্রো, দানিলো, এমারসন, লোদি, মিলিতাও, ফিলিপ, মার্কুইনহোস, থিয়াগো।
  • মিডফিল্ডার: ক্যাসেমিরো, লুইজ, রিবেইরো, ফ্যাবিনহো, ফ্রেড, পাকুয়েতা।
  • ফরোয়ার্ড: এভারটন, বারবোসা, জেসুস, নেইমার, রিচার্লিসন, ফিরমিনো এবং ভিনিসিয়াস।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.