সিঙ্গাপুর: নেইমারের মাইলস্টোন ম্যাচ জয় দিয়ে স্মরণীয় করে রাখতে পারল না ব্রাজিল৷ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে সেনেগালের কাছে আটকে গেল সেলেকাওরা৷ ম্যাচের শুরুতেই গোল করে এগিয়ে গেলেও ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি ব্রাজিল৷ প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরায় সেনেগাল৷ দ্বিতীয়ার্ধে দু’দলই প্রতিপক্ষের জালে বল জড়াতে ব্যর্থ হওয়ায় ম্যাচের চূড়ান্ত স্কোরলাইন থেকে যায় ১-১৷ ব্রাজিলের হয়ে গোল করেন রবের্তো ফির্মিনো৷ সেনেগালের হয়ে সমতা সূচক গোল করেন ফামারা দিয়েধিউ৷

আরও পড়ুন: ফুটবলকে বিদায় জানালেন সোয়েনস্টেইগার

ম্যাচের ৯ মিনিটের মাথায় ডান প্রান্ত দিয়ে গ্যাব্রিয়েল জেসুসের বাড়ানো বল সেনেগালের জালে ঠেলে ব্রাজিলকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন ফির্মিনো৷ ব্রাজিলের জার্সিতে এটি তাঁর কেরিয়ারের ১৩ তম গোল৷

ফ্রেন্ডলি হলেও নেইমারের কাছে ম্যাচটি বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছিল অন্য কারণে৷ দেশের হয়ে নেইমারের এটি শততম আন্তর্জাতিক ম্যাচ৷ সেই নিরিখে মাইলস্টোন ম্যাচে গোল করার জন্য মরিয়া ছিলেন নেইমার নিজে৷ তবে শেষমেশ তা সম্ভব হয়নি৷ বিশেষ করে ম্যাচের প্রথমার্ধে নেইমারকে তেমন একটা প্রভাবশালীও দেখায়নি৷

আরও পড়ুন: বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিতে মেরি কম, ফের নিশ্চিত করলেন পদক

ব্রাজিলের ক্রমাগত আক্রমণের মাঝেও সেনেগাল একবার প্রতিআক্রমণ থেকে গোল করার উপক্রম করেছিল৷ সাদিও মানের জোরালো শট সে যাত্রায় এডারসন প্রতিহত না করলে ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হতেই পারত৷ যদিও সেই মানেকে আটকাতে গিয়েই প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে সেনেগালকে পেনাল্টি উপহার দিয়ে বসে ব্রাজিল৷ ৪৫+১ মিনিটে ব্রিস্টল সিটির স্ট্রাইকার ফামারা স্পট কিক থেকে গোল করে ব্রাজিলের জয়ের সম্ভাবনায় জল ঢেলে দেন৷