কলকাতা: ফাইনালে নেই লিঙ্কনরা৷ এখনও যেন সেই বাস্তবটা মেনে নিতে পারছে না কলকাতা৷ ফাইনালের লড়াই ইংল্যান্ড-স্পেনের৷ আর থার্ড বয়ের পজিশন নিশ্চিত করতে যুবভারতীতে লড়বে ব্রাজিল৷ মালির বিরুদ্ধে সেই লড়াইয়ে অবশ্য ব্রাজিলই ফেভারিট৷

তবে এই মাঠেই যে ফাইনাল খেলার কথা ছিল পাউলিনহোদের৷ সেই স্বপ্ন এখন অতীত৷ স্বপ্নভঙ্গ হলেও সামনের দিকে তাকাতে চান ব্রাজিল কোচ৷ আমাদেও’র বক্তব্য, ‘শেষ চারে শেষ করেছি, এটাও তো প্রাপ্তি৷’

ফুটবল খেলার আসল মানেটা যেন যুবভারতীর কনফারেন্স রুমে বুঝিয়ে দিলেন আমাদেও৷ গত বারের রানার্স মালি বিরুদ্ধে সবুজ ঘাসে ৯০ মিনিটের লডা়ইয়ের আগে শুনিয়ে গেলেন, ‘ফল অ্যান্ড গেট আপ’ তত্ত৷ কী সেই তত্ত? হারলে হারো, তার পরই উঠে দাঁড়াও৷

যেমনটা করেছিলেন ইংল্যান্ড ম্যাচের পর৷ আমাদেও শোনালেন, ইংল্যান্ডের কাছে হারের পরের দিনই গোটা দলকেই নতুন করে মোটিভেট করেছেন তিনি৷ সেসময় আমাদেও নাকি বলেছিলেন ‘মাথা উঁচু করে ফের লড়াই করতে হবে৷’ আর সেই মন্ত্রেই ফের নতুন করে তৃতীয় স্থানের লড়াই শুরু করছে সেলেকাওরা৷

টুর্নামেন্টের ফাইনালিস্ট দুই দলকেও শুভেচ্ছা জানালেন ব্রাজিল কোচ৷ চলতি বিশ্বকাপে স্পেনের বিরুদ্ধে লডা়ই দিয়ে অভিযান শুরু করেছিল পাউলিনহোরা আর শেষ ম্যাচে খেলেছে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে৷ দুই দলের শক্তির মাঠের লড়াইয়ে প্রত্যক্ষ করেছে ব্রাজিল৷ তাই আমাদেও-র ছাত্ররাই বলতে পারতেন কারা এগিয়ে? সেটা অবশ্য বললেন না আমাদেও, শুধু শোনালেন, ‘ইউরোপের ফুটবল সোনালী সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে৷’

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ