চেন্নাই : বাড়ি থেকে বিয়ে ঠিক করেছিল চেন্নাইয়ের এক যুবতির। কিন্তু সে পছন্দ করে অন্য কাউকে। ওদিকে বাড়িতে বলার সাহস না পেয়ে বয়ফ্রেন্ডকে সঙ্গে নিয়ে নতুন মতলব ভাঁজে যুবতি। বিয়ের আগের দিন সে এমন কাণ্ড ঘটাল যা দেখে হতবাক তাঁর বাড়ির লোকেরাই।

বিয়ের ঠিক আগের দিন প্ল্যানমাফিক নিজের ও যুবতির বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও হবু বরকে পাঠায় ওই যুবতির প্রেমিক। সেই সমস্ত ছবি ও ভিডিও দেখে বিয়ে বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় বর পক্ষ। অপরিচিত যুবকের সঙ্গে ভিডিও ও ছবি দেখে বাতিল করা হয় বিয়ে। পুরোটাই ঘটে যুবতি ও তাঁর প্রেমিকের প্ল্যান অনুযায়ীই। এই অবধি দারুণ সফল হয় তাঁদের পরিকল্পনা।

কিন্তু এরপর ওই যুবতির বাড়ি থেকে মামলা করা হয় এমজিআর নগর থানায়। বিয়ে ভাঙার দায়ে মামলা হয় অভিযুক্ত বর ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে। একই সঙ্গে কোন ব্যক্তি ছবি ও ভিডিও পাঠিয়েছে তা জানার জন্য মামলা দায়ের করে কনে পরিবার।

তদন্তে নেমে হতবাক হয়ে যায় পুলিশ। ছবি ও ভিডিও যে মোবাইল নম্বর থেকে পাঠানো হয়েছিল সেটির সন্ধান পায় পুলিশ। খোঁজ মেলে সেনাপক্কমে এক যুবকের। তাঁকে জেরা করতেই বেরিয়ে আসে আসল সত্যি। যা জেনে তাজ্জব বনে যান পুলিশ কর্তারাও।

জানা যায়, দুজনের প্ল্যানমাফিকই হবু বরকে পাঠানো হয়েছিল ওই ভিডিও ও ছবি। এরপর ব্যাপার গড়ায় মধ্যস্ততায়। পুলিশ উভয় পক্ষকে থানায় ডাকে এবং তাঁদেরকে পুরো ঘটনা জানায়। কোনও পক্ষই আর এরপর থানায় ডায়রি করেনি। যুবক-যুবতিকেও সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।