স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলিকে পাঁচ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা আগেই ঘোষণা করেছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। এবার ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি মেরামতের জন্য তা খতিয়ে দেখেন মেট্রোর পাঁচ সদস্যের বিশেষজ্ঞ কমিটি। তারপরই মেট্রো কর্তৃপক্ষ জানান, বৌবাজারে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি আগে মেরামত করা হবে এবং তারপরই শুরু হবে ইস্ট -ওয়েস্ট মেট্রো টানেলের কাজ।

মঙ্গলবার বৌবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি পরিদর্শনে যান মেট্রোর পাঁচ সদস্যের বিশেষজ্ঞ কমিটি। ক্ষতিগ্রস্ত কোন বাড়ি কীভাবে মেরামত করা যায় তা এদিন তারা খতিয়ে দেখেন। ঘুরে দেখেছেন স্যাকরাপাড়া লেন ও দুর্গা পিতুরী লেন এর ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলিও। যে যে বাড়িগুলি দুর্বল সেই বাড়িগুলি আগে মজবুত করার ব্যবস্থা করা হবে। মেরামতের পাশাপাশি অক্ষত বাড়িগুলির ক্ষতি ঠেকাতেও সার্ভে করা হয়েছে। নতুন করে কোনও বাড়ি ক্ষতি হলে যাতে সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করা যায় সেই বিষয়টিও এদিন তারা খতিয়ে দেখেন। তিনটি পর্যায়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির কাজ শেষ করা হবে।

প্রথম পর্যায়ে কম ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলি মেরামত করা হবে। দ্বিতীয় পর্যায়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলির মেরামত করা হবে। তৃতীয় পর্যায়ে নতুন করে যেসব বাড়ি তৈরি করা হবে তার কাজ সম্পন্ন করা হবে। এমনটাই জানানো মেট্রো কর্তৃপক্ষ। বৌবাজারে বিপর্যয়ের পর নবান্নে বৈঠক ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী।তিনি সেখানে বলেছিলেন , কার দোষ কার গুণ এটা এখন দেখার সময় নয়৷

তিনি একদিকে যেমন প্রকল্পের কাজ শেষ করার কথা বলেছেন তেমনই আবার এই বাড়ি ভেঙে পড়া মানুষগুলিকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথাও বলেন তিনি৷ তাঁর দাবি ছিল, পুনর্বাসনের ব্যবস্থা মেট্রোকেই করে দিতে হবে৷

এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, বাড়ির বদলে বাড়ি করে দেওয়া হবে৷ এছাড়া আপাতত বাড়ি ভাড়ার ব্যবস্থা করার এবং তাঁদের বাড়ি ভাড়ার খরচ যাতে দেয় মেট্রো কর্তৃপক্ষ। বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রীর সেই দাবি মেনে নিয়েছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ।