প্রসেনজিৎ চৌধুরী: বাগদেবী কি বাদ সাধিতেছেন ! না হলে এমন দিন বিভ্রাট তো হয়না। ইতি উতি শোনা যাচ্ছে এমন কথা। দিনক্ষণ বেমালুম পাল্টে গেল দুই বাংলার প্রাণের উৎসব-বইমেলার। এর সঙ্গে জড়িয়েছে রাজনৈতিক তাপ উত্তাপ-তবে সেটা ঢাকায়। আর কলকাতায় নেহাতই পুজো পুজো ভাব। এসবের মাঝে প্রকাশকদের ঘুম উড়ছে। উপমহাদেশের এই দুই সেরা বইমেলা ঘিরেই বড়-মাঝারি-ছোট প্রকাশনা সংস্থাগুলি বছর ভর অপেক্ষা করে। তাই তো বাঙালির বারো মাসে ১৪ পার্বণ বইমেলা। আগেই পাল্টে গিয়েছে ঢাকার অমর একুশ বইমেলার দিনক্ষণ।

কারণ, বাংলাদেশের রাজধানীর পুর নির্বাচন। ঢাকা মহানগরের দুটি পুর নিগম। নির্বাচন কমিশন এই দুই সিটি কর্পোরেশনের ভোট ৩০ জানুয়ারি হবে বলে জানিয়েছিল। এতে ক্ষুব্ধ হয় বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দু সমাজ। তাদের যুক্তি, সরস্বতী পুজোর দিন ভোট হবে না। এই যুক্তি আদালতে না টিকলেও লাগাতার অনশন শুরু হয়। শাসক আওয়ামী লীগ, বিরোধী বিএনপি, জাতীয় পার্টি সহ বিভিন্ন গণ সংগঠনও পুজোর দিন ভোট না করার দাবি রাখে। পরে দাবি মেনে ১ ফেব্রুয়ারি নতুন করে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের দিন ঠিক হয়। ফলে পূর্ব নির্ধারিত ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার অমর একুশ বইমেলা শুরু হচ্ছে না। পরের দিন ২ ফেব্রুয়ারি মেলার উদ্বোধন হবে। বাংলা একাডেমি ঢাকার তরফে নতুন উদ্বোধনী দিনের কথা জানানো হয়েছে।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একুশে গ্রন্থমেলার উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী মঞ্চে পশ্চিমবঙ্গের কবি শঙ্খ ঘোষ এবং মিশরের লেখক, গবেষক ও সাংবাদিক মোহসেন আল-আরিশি অতিথি থাকবেন। তবে কবি শঙ্খ ঘোষ অসুস্থ থাকায় তাঁর উপস্থিতি নিয়ে তেমন আশান্বিত নন আয়োজকরা। প্রবীণ কবির দ্রুত আরোগ্য কামনা করছে বাংলাদেশ সাহিত্য সমাজ। ঢাকার পরেই পাল্টে গেল কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলার দিনও। এখানেও সেই সরস্বতী পুজোর নির্ঘণ্ট নিয়ে জটিলতা।

২৯ জানুয়ারি সরস্বতী পুজোর কারণে এগিয়ে আনা হল কলকাতা বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। পাবলিশার্স অ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ডের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়েছে৷ ৪৪ তম কলকাতা বইমেলার উদ্বোধন হবে ২৮ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৬টায় সেন্ট্রাল পার্কে। উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই বাংলার দুই বইমেলার এমন দিন পরিবর্তনে সরস্বতী পুজোর ছাপ আগে পড়েছে বলে জানা যাচ্ছে না। যাই হোক, দিন পাল্টালেও প্রকাশকরা নিজ প্রকাশনীর নতুন বই বের করার তাগিদে নাওয়া খাওয়া ভুলতে বসেছেন। শীতল আমেজে এসেছে প্রাণের উৎসব-বইমেলা।