স্টাফ রিপোর্টার, মথুরাপুর: শেষ দফা নির্বাচনেও নিজের ধারা বজায় রাখল রাজ্য। ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার প্রথম ঘন্টাতেই বোমাবাজি শুরু হল মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্র। বিরোধীদের অভিযোগ এর পেছনে রয়েছে শাসক দলের দুষ্কৃতিরা।

ভোটারদের বুথে যাওয়া আটকে ভোটলুঠের পরিকল্পনা থেকেই এরকম বোমাবাজি শুরু করেছে তৃণমূল। এমনটাই দাবি এই কেন্দ্রের বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের৷ শেষদফার ভোটের আগের রাতের বাড়িবাড়ি গিয়ে ভোটারদের হুমকির অভিযোগ উঠেছে মথুরাপুর কেন্দ্রের বিভিন্ন বুথে৷

যদি কারা এই হুমিকে দিয়েছে সে বিষয়ে কেউই মুখ খুলতে চাননি৷ রবিবার সকালেই সুস্থ্যভাবেই ভোট গ্রহণ শুরু হলেও কিছুক্ষণ পর ছবিটা পাল্টাতে শুরু করে মথুরাপুরে৷ পরপর বোমবাজিতে রাস্তার কিছু অংশ ভেঙে যায়৷ সংবাদমাধ্যমের খবর অনুসারে এলাকায় অশান্তি রুখতে কেন্দ্রীয়বাহিনী এবং রাজ্য পুলিশ তৎপর হয়েছে৷

প্রসঙ্গত মথুরাপুর ছাড়াও রাজ্যের আরও আটটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে৷ মথুরাপুর ছাডা়ও অন্যান্য জায়গাতেও হিংসার খবর আসছে৷ বেলগাছিয়াতে তাদের এজেন্টদের বসতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ সিপিএমের৷ বুথ থেকে এজেন্টদের বার করে দেওয়ায় বেলগাছিয়া মোড়ে অবস্থান বিক্ষোভে বসেছিলেন বাম প্রার্থী কণীনিকা ঘোষ৷

অভিযোগ, তৃণমূল বাম এজেন্টদের বুথগুলি থেকে বার করে দিচ্ছে৷ ঘটনাস্থলে কেন্দ্রীয় বাহিনী গিয়েছে৷ কলকাতা উত্তরকেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহা ভোট দিলেন৷ তাঁর অভিযোগ, বহু জায়গা থেকে ভোটারদের ভোট না দেওয়ার অভিযোগ পাচ্ছেন৷ ভয় দেখানো হয়েছে বিজেপি কর্মীদের৷ এজেন্ট বসতে দেওয়া হচ্ছে না৷