স্টাফ রিপোর্টার, ব্যারাকপুর: কাঁকিনাড়ায় মহিলা বিজেপি কর্মীকে লক্ষ্য করে বোমা, আতঙ্ক ছড়াল এলাকায়।

নিজের বাড়ির ভেতরেই আক্রান্ত হলেন এক মহিলা বিজেপি কর্মী। ওই বিজেপি কর্মীকে লক্ষ্য করে তাঁর বাড়ির ছাদে ছোঁড়া হয় বোমা। বরাত জোরে প্রাণে বেঁচেছেন ওই বিজেপি কর্মী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া থানার অন্তর্গত কাঁকিনাড়া সুন্দিয়া হাউজিং এস্টেটের ভেতরে। আক্রান্ত ওই মহিলা বিজেপি কর্মীর নাম দুর্গা রানী দে ঘোষ।

ওই বিজেপি কর্মী ভাটপাড়া অঞ্চলের সক্রিয় বিজেপি কর্মী বলেই পরিচিত। রবিবার রাতে তিনি যখন তাঁর বাড়ির ছাদে জামাকাপড় আনতে যান, তখনই তাঁকে লক্ষ্য করে ওই ছাদে বোমা মারে দুষ্কৃতীরা। তবে কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে তা বুঝে উঠতে পারছেন না দুর্গা রাণী দেবী।

দুর্গা রানী দেবীর অভিযোগ, তাঁকে লক্ষ্য করেই তাঁর বাড়ির ছাদে বোমা মারা হয়েছে। এর আগেও বিজেপি করায় তাঁর উপর হামলা হয়েছিল বলে অভিযোগ। তিনি বলেন, “আমি ছাদে ওঠার পরই আমাকে লক্ষ্য করে বোমা মারা হয়, আমি যেখানে দাঁড়িয়েছিলাম, ঠিক তার দু’হাত দূরে বোমা এসে পড়ে। কালো ধোঁয়ায় আমি দুষ্কৃতীদের চিনতে পারিনি। পুলিশকে জানালে ওরা সঙ্গে সঙ্গে এসে নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে গিয়েছে।”

রবিবার সারারাত বাড়ির সামনে পুলিশ পিকেট ছিল। তিনি ভীষনই আতঙ্কিত বলে জানিয়েছেন ওই বিজেপি কর্মী। পুলিশকে তদন্ত করে দোষীদের খুঁজে বের করতে বলেছেন তিনি। ২০১৩ সালে বিজেপিতে যোগদান করেন এই মহিলা। ২০১৫ সালে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে শ্বশুর বাড়িতেই থাকেন। সেখানে এই প্রথম এরকম ঘটনা ঘটেছে।

ভাটপাড়া থানায় এই ঘটনার অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই বিজেপি কর্মী। এই ঘটনায় কাঁকিনাড়া সুন্দিয়া হাউজিং এস্টেট এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় দুষ্কৃতীরা যে চোরাগোপ্তা হামলা চালাচ্ছে তা প্রমাণ হল। এদিকে এই হামলার ঘটনা বিজেপির দলীয় কোন্দল না তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হামলা তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ভাটপাড়া থানার পুলিশ।