মুম্বই: লোকজনের জেরে বন্ধ বিনোদন জগৎ। সিনেমা হল থেকে ছবির শুটিং সবই থেকে গিয়েছে করোনা সংক্রমণের জন্য। যার ফলে বিনোদন জগতের সঙ্গে যুক্ত অভিনেতা এবং অন্যান্য কলাকুশলীরা যে আর্থিক সংকটের মধ্যে পড়তে চলেছেন তা বলাই বাহুল্য। তাই ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ এর তরফ থেকে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব আবেদন করে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে।

লকডাউনের জেরে এখন ছবির শুটিং বন্ধ। কিন্তু কিন্তু যে সমস্ত ছবির শুটিং সারা হয়ে গিয়েছিল আগেই, সেগুলির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ শুরু করতে মঙ্গলবার এই সংস্থার তরফ থেকে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে চিঠি পাঠানো হয়।

সংস্থাটির তরফ থেকে চিঠিতে জানানো হয়েছে, প্রযোজকরা বিভিন্ন প্রজেক্ট এর জন্য টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। সেইসব প্রজেক্ট কবে মুক্তি পাবে এবং তার ফলাফল কি হবে তা এখন পুরোটাই অনিশ্চয়তার সামনে দাঁড়িয়ে। বেশ কিছু প্রজেক্টের কাজ শেষ হয়ে গেলেও বাকি রয়েছে প্রোডাকশনের কাজ অর্থাৎ এডিটিং, সাউন্ড এডিটিং ইত্যাদি। শুটিং এখন শুরু না করলেও এই কাজগুলি আবার শুরু করা যায়। তাহলে কাজ গুলি কেউ সম্পূর্ণ করা যায়। সেগুলি যাতে নতুন করে আবার শুরু করা যায় তার জন্যই উদ্ধব ঠাকরে এর কাছে এই আবেদন করেছে FWICE.

সংস্থা জানিয়েছে যে, পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ শুরু হলেও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি পালন করেই তা হবে। প্রত্যেক শিল্পী ও সদস্যের স্বাস্থ্য মূল্যবান আরন আর তাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং সম্পূর্ণ সর্তকতা অবলম্বন করেই কাজ শুরু হবে।

পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ এখন আবার শুরু করা গেলে লকডাউন ওঠার সঙ্গে সঙ্গেই সেই ছবিগুলি মুক্তির ব্যবস্থা করা যাবে। যার ফলে আর্থিক ক্ষতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে বলেও জানানো হয়েছে চিঠিতে। ফলে বিনোদন জগতের সঙ্গে যুক্ত শিল্পী ও কলাকুশলীদের ক্ষতি একটু কম হবে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প