ফাইল ছবি

মুম্বই- এবার আর বাড়ির ব্যালকনি থেকে হাততালি ও ঘণ্টা বাজানো নয়। আগামী ৫ এপ্রিল রাত ৯টায় সকলকে ৯ মিনিটের জন্য মোমবাতি, প্রদীপ বা মোবাইলের টর্চ জ্বালানোর নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।সেই সময়ে বাড়ির সমস্ত আলো নিভিয়ে ব্যালকনিতে এসে এই কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনই। শুক্রবার সকাল ৯টায় ভিডিও বার্তায় ফের দেশবাসীর কাছে আবেদন করলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধামন্ত্রীর এই আবেদনের পরেই নেটিজেনরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে যান। একদল বলেন, তাঁরা আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা শুনবেন বলে আশা করেছিলেন। আর হাততালি-ঘণ্টার দিনের মতোই এদিনও রাস্তায় মানুষ ভিড় করবে বলে ধারণা তাঁদের।

আবার অন্যদিকে মোদীভক্তরা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী যখন বলেছেন তার পিছনে যথেষ্ট যুক্তি রয়েছে। তিনি গোটা দেশের একতা বোঝানোর জন্যই কথাটি বলেছেন। তেমনই বলিউডের তারকারাও দু ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের দিদি রঙ্গোলি চন্দেল।

তিনি টুইট করেছেন, প্রদীপ জ্বালানো খুবই সুন্দর একটি সংকেত। প্রদীপের শিখা একটি স্বর্গীয় অনুভূতি দেয় আর খুব শান্ত করে। আর আমরা সবাই একসঙ্গে আছি এটা বোঝাতে চলুন কাজটা করি। নরেন্দ্র মোদীজি যে ভাবে আমাদের আবেগকেও গুরুত্ব দিয়ে আমাদের সারিয়ে তুলতে চাইছেন তার আমি প্রশংসা করি। জয় শ্রীরাম।

তপসি পান্নু টুইট করেছেন, নতুন টাস্ক এসে গিয়েছে। ইয়ে! আক্ষরিক অর্থে প্রশংসা হলেও তপসির এই টুইটে অনেকেই ব্যঙ্গের গন্ধ পেয়েছেন। বিবেক অগ্নিহোত্রীও মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে লিখছেন, সবাই প্রধানমন্ত্রীকে ট্রোল করার আগে আমি বলি যে ভারতের শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উনি জানেন আবেগ ও আধ্যাত্মিক দিক থেকে ভারতীয়দের কী ভাবে নেতৃত্ব দিতে হয়। আর কোনও উপায় নেই।