আবুজা : ফের গণহত্যা। নৃশংসতার শিকার কয়েকশো গরীব সাধারণ মানুষ। সুদূর নাইজেরিয়ায় অন্তত ১১০ জন চাষী এবং জেলেদের নির্মমভাবে গলার নলি কেটে শিরচ্ছেদ করল জঙ্গিরা।

ভয়াবহ এই হত্যালীলার ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার নাইজেরিয়ার বোর্নো রাজ্যের কোশোবে গ্রামে। রবিবার একটি বিবৃতি দিয়ে ঘটনার কথা জানিয়েছেন রাষ্ট্রসংঘের কো-অর্ডিনেটর এডওয়ার্ড কালোন।

বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, “অন্তত ১১০ জন চাষীকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। এই হামলায় আরও অনেকে জখম হয়েছেন। এ বছর নিরপরাধ সাধারণ মানুষের উপর এটাই সবচেয়ে ভয়ংকর হামলা। এই নৃশংস হামলা যারা করেছে, তাদের যথাযোগ্য বিচারের আবেদন জানাচ্ছি।”

জানা গিয়েছে, গত শনিবার নাইজেরিয়ার বোর্নো রাজ্যের কোশোবে গ্রামের একটি ধানখেতে এই নৃশংস ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনায় রবিবার জাবারমারি গ্রামে মৃতদের শেষকৃত্যে হাজির ছিলেন বর্নোর গভর্নর বাবাগানান উমারা জুলুম। ওই গ্রামেই শনিবারের হামলায় ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধারকাজ শেষ হওয়ার পর মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরও জানা গিয়েছে, হামলাকারী জঙ্গিরা কৃষকদের বেঁধে একের পর এক গলার নলি কেটে হত্যা করছিলো। শুধু তাই নয়, গত মাসে বোকো হারাম জঙ্গিরা মাইদুগুড়ির কাছে চাষের জমিতে কর্মরত অবস্থায় ২২ জন কৃষককে হত্যা করেছিল।

জিহাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩৬,০০০ মানুষ নিহত হয়েছেন। যা ২০০৯ সাল থেকে প্রায় দুই মিলিয়ন মানুষকে বাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য করেছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।