নয়াদিল্লি: এবার ভারতে তৈরি হচ্ছে বোয়িং-এর নয়া বিজনেস ইউনিট। ভারতের প্রতিরক্ষার বহরকে মাথায় রেখেই এদেশে ব্যবসা করতে চাইছে এই সংস্থা। এখানে ইউনিট থাকলে ভারতে অর্ডার পেতে আরও সুবিধা হয়ে বলে দাবি বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই বিমান সংস্থার।

চলতি সপ্তাহে ঘোষিত হবে আইনি সত্ত্বা। এই নিয়ে চতুর্থ দেশে এরকম স্বাধীন ইউনিট তৈরি করছে বোয়িং। এর আগে ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া ও সৌদি আরবে এই ধরনের ইউনিট তৈরি হয়েছে। এই ইউনিট তৈরি হওয়ার ফলে বাড়বে কর্মসংস্থানও। কারণ এখানে প্রচুর লোক নেওয়া হবে। বেশীর ভাগই ভারত থেকে হবে নিয়োগ। তবে বিদেশ থেকে কিছু বিশেষজ্ঞকে নিয়ে আসা হবে। প্রত্যেক বছর ৫০০ মিলিয়ন ডলারের বেশি লাভের আশা দেখছে বোয়িং। তবে ঠিক কত লোক নেওয়া হবে, সে ব্যাপারে এখনও স্পষ্টভাবে কিছু জানানো হয়নি।

অন্যদিকে, বোয়িং-এর প্রতিযোগী লকহিড মার্টিন ও এয়ারবাসের মত সংস্থাও ভারতে সুযোগ খুঁজছে। কারণ ভারতেই এই মুহূর্তে বিশ্বের সবথেকে বড় অস্ত্র আমদানিকারী দেশ। আগামী এক দশকে ভারত সামরিক খাতে ২৫০ বিলিয়ন ডলার খরচ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে, লকহিড মার্টিন F-16 ফাইটার জেট তৈরির কাজ ভারতে কররা চিন্তাভাবনা করছে। গত কয়েক বছরে ভারতের সঙ্গে একাধিক চুক্তি হয়েছে বোয়িং-এর। চিনুক ও অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার কেনার ২.৫ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি হয়েছে। এছাড়া P-8I নজরদারি বিমানও তৈরি করবে এই সংস্থা।