বেজিং: নতুন অভিজ্ঞতার সাক্ষী হলেন চিনের এক বাসিন্দা। গোটা বিমানে যাত্রী বলতে একমাত্র তিনি। একটি মোটর কোম্পানিতে কর্মরত ঝাং একমাত্র মহিলা যিনি ভাগ্যক্রমে একাই একটা বোয়িংয়ে যাত্রী হওয়ার সুযোগ পেলেন। ফেব্রুয়ারি মাসের ৮ তারিখে চিনে নতুন বছর শুরু হয়। এই সময় চিনা নতুন বছর (বানরের বছর) উদযাপনের জন্য বহু মানুষ তাঁদের গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সেই সময় কী বিমান, কী ট্রেন, টিকিট পাওয়া এক দুরূহ ব্যাপার। কিন্তু ঝাংয়ের ক্ষেত্রে ঘটল এক ব্যতিক্রমী ঘটনা৷ বিমানে চড়ার পর তিনি দেখলেন, বাদবাকি আসন ফাঁকা৷ চিন জুড়ে চলছে প্রবল তুষারঝড়৷মধ্য চিনের উহান বিমানবন্দর থেকে ঝাং রওনা দিয়েছিলেন দক্ষিণ চিনের গুয়াংঝু যাবেন বলে৷ খারাপ আবহাওয়ার জন্য বেশিরভাগ যাত্রীই বিমানবন্দরে পৌঁছাতে দেরি করেন। আবার অনেকে যাত্রী আগের বিমানে চেপে নিজেদের গন্তব্যস্থলে রওনা দেন। তুষারঝড়ের কারণে ঝাংয়ের বিমান ১০ ঘণ্টা দেরিতে ওড়ে।

সেই বিমানেই যাত্রী হিসাবে যখন তিনি ওঠেন, দেখেন যাত্রী হিসাবে আর কেউই নেই৷ঝাংয়ের বুক দুরু দুরু, আদৌ ছাড়বে তো? কিন্তু বোয়িং ৩৭৩ কর্তৃপক্ষ তাঁকে নিরাশ করেননি৷ ঝাংকে একা নিয়েই ওড়ে অত বড় প্লেন। সব মিলিয়ে দুই ঘণ্টার সফর৷ তবে যাত্রী হিসাবে তাঁর আতিথেয়তায় কোন ত্রুটি রাখেনি কর্তৃপক্ষ। নিজের দেশের মাইক্রোব্লগিং সাইটে এই অভিজ্ঞতার কথা ও ছবি ছবি শেয়ার করেছেন ঝাং।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV