কলকাতা:  মুখ্যমন্ত্রীর পর এবার রাজ্যে শান্তির পরিবেশ বজায় রাখতে আবেদন জানালেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কোনও প্ররোচনায় পা না দেওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম। নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির প্রতিবাদের নামে রাজ্যে বেড়ে চলা হিংসার ঘটনায় আদতে বিজেপিরই হাত শক্ত হচ্ছে বলেও এদিন ভিডিও বার্তায় অভিযোগ ফিরহাদের।

নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে শুক্রবার থেকেই উত্তপ্ত এরাজ্য। শুক্রবার দিনভর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আন্দোলনের নামে চলে তাণ্ডব। কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, মালদহ, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া-সহ একাধিক জেলায় চলে অবরোধ, বিক্ষোভ। শুক্রবারের বিক্ষোভের আঁচ ছড়ায় শনিবারেও। শনিবার সকাল থেকে জেলায় জেলায় শুরু হয় অবরোধ, বিক্ষোভ। মুর্শিদাবাদে রেলস্টেশন ভাঙচুরের পাশাপাশি দফায় দফায় রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ চলে কলকাতা লাগোয়া কোনা এক্সপ্রেসওয়েতে। দাঁড়িয়ে থাকা পরপর বেশ কয়েকটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা।

আন্দোলনের নামে হিংসা বরদাস্ত না করার বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীও। বিক্ষোভকারীদের সংযত হতে আবেদন জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আন্দোলনের নামে সরকারি সম্পত্তি নষ্টে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এরাজ্যে কোনওভাবেই এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করা হবে না বলেও আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি এবার শান্তির পরিবেশ বজায় রাখার আবেদন ফিরহাদ হাকিমেরও। ভিডিও বার্তায় এদিন ফিরহাদ বলেন, ‘পথ অবরোধ করে , বাস জ্বালিয়ে আদতে বাংলার মানুষেরই ক্ষতি হচ্ছে৷ এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়াই করতে হবে।’ একইসঙ্গে রাজ্যে বেড়ে চলা হিংসার ঘটনায় বিজেপিকেই দায়ী করেছেন ফিরহাদ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,‘ বিজেপির টাকায় ও কারও প্ররোচনায় পা দিয়ে আন্দোলনের নামে হিংসায় মদত দেবেন না, নিজেরাও গন্ডগোল বাধাবেন না৷’ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই বিজেপি বাংলায় অশান্তি তৈরির চেষ্টা করছে বলেও ভিডিওবার্তায় অভিযোগ করেছেন ফিরহাদ হাকিম।

আন্দোলনাকারীদের সংযত হওয়ার বার্তা দিয়ে ফিরহাদের আবেদন, ‘আন্দোলনের নামে অশান্তি ছড়িয়ে বিজেপির হাত শক্ত করবেন না৷ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে৷ এরাজ্যে কোনওভাবেই এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করা হবে না। মুখ্যমন্ত্রীর এই আশ্বাসের পরেও কেন বাংলায় অবরোধ, ভাঙচুর?’৷

একইসঙ্গে ভিডিওবার্তায় শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলনের পরামর্শ দিয়েছেন পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী৷ এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ আরও বলেন, ‘এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে মিছিল করবে তৃণমূল৷ তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে মিছিলে হাঁটবেন। আন্দোলনকারীদের সেই মিছিলে সামিল হওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ