ঢাকা: অনুমতি ছিল না। তবুও নিজেদের শক্তি দেখিয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করল বিএনপি। জাতীয় সংসদে প্রধান বিরোধী দল না হলেও তারাই যে মূল বিরোধী তা দেখাতে মরিয়া দলটি।

পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সমাবেশে যোগ দিতে গিয়ে অনেক নেতা-কর্মী আটক হলেন। বিএনপির দাবি, ৫০ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। ভারতের সঙ্গে ‘দেশবিরোধী চুক্তি’ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিস্তা নদীর জল বণ্টন হয়নি, তবুও ফেনী নদীর জল কেন ভারতের ত্রিপুরা-তে দেওয়া হবে এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিএনপি।

একইসঙ্গে ফেনী জল চুক্তি-তে সরকারের সমালোচনা করায় ছাত্র আবার ফাহাদ কে খুন করার ইস্যুও ছিল। এসব নিয়েই শনিবার দুপুরে ঢাকার নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির সমাবেশ করে। পূর্বঘোষিত হলেও সমাবেশের জন্য পুলিশের অনুমতি পায়নি বিএনপি।

এরপরেও সমাবেশ শুরু করায় আটকে দেয় পুলিশ। দফায় দফায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তি হয়। দু’পক্ষ একে অপরের দিকে তেড়ে যায়।

দলীয় নেত্রী তথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আর্থিক দুর্নীতি মামলা জেল বন্দি। তাঁকে ছাড়াই আন্দোলন চালিয়ে যেতে মরিয়া বিএনপি।