একের পর এক ভবিষ্যদ্বাণী করে বিখ্যাত হয়ে উঠেছিলেন রাশিয়ার অন্ধ ভবিষ্যৎ বক্তা বাবা ভাঙা। যার আসল নাম ভ্যাঞ্জেলিয়া প্যান্ডেভা দিমিত্রোভা। বছরের পর বছর তাঁর একের পর এক ভবিষ্যৎ বাণী সত্যি হয়েছে। গ্লোবাল ওয়ার্মিং, ২০০৪-এর সুনামি, এমনকি ৯/১১-র কথাও বলে গিয়েছিলেন তিনি। তবে এবার ফের নতুন করে তাঁর এক ভবিষ্যৎবাণীর কথা উঠে এসেছে শিরোনামে। সেটা হল তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ। এই বাবা ভাঙাই কিন্তু আফ্রিকান-আমেরিকান প্রেসিডেন্ট (বারাক ওবামার)-এর ক্ষমতায় আসার কথা ও ইসলামিক সন্ত্রাসবাদের উত্থানেরও ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ আসন্ন! বিমানবাহিনীকে প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ প্রেসিডেন্টের

১৯৯৬ সালে তাঁর মৃত্যু হওয়ায়, তাঁর বলে যাওয়া কোনও ঘটনাই আজ পর্যন্ত সত্যি হতে দেখেননি নিজের চোখে। তাঁর বাড়িটি একটি মিউজিয়ামে পরিণত করা হয়েছে। তাঁর মৃত্যুর ২০ বছর পরেও তাঁর সব কথাই সত্যি হয়ে যাচ্ছে। তাই এবার তাঁর ভবিষ্যৎবাণীই আতঙ্কে কাঁপিয়ে দিচ্ছে গোটা বিশ্বকে।

শুধুমাত্র সুনামি বা টুইন টাওয়ার অ্যাটাক নয়, বাবা ভাঙা কিন্তু ‘বেক্সিট’-এরও ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। ইসলামিক সন্ত্রাসবাদীরা যে একদিন রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করবে সেকথাও বলে গিয়েছিলেন তিনি। আর তার প্রমাণ আমরা পেয়েছিল গত মাসেই। ভয়াবহ রাসায়নিক হমালার ছবি দেখা গিয়েছে সিরিয়ায়। এ বাবা ভাঙার কথা অনুযায়ী, বারাক ওবামা অফিস যখন অফিস ছাড়বেন তখন আমেরিকা অর্থনৈতিক টালমাটাল পরিস্থিতি চলবে। কিন্তু ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট (ডোনাল্ড ট্রাম্প) ক্ষমতায় আসার পর সেই অবস্থা থেকে আমেরিকাকে মুক্ত করার চেষ্টা করলেও সেটাই হবে আমেরিকার শেষে শুরু।

আরও পড়ুন: শুরু হয়ে গিয়েছে রাশিয়া-আমেরিকার মধ্যে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ!

উত্তর ও দক্ষিণের লড়াইয়ের কথা বলে গিয়েছিলেন তিনি। যা উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ার লড়াই বলে ধরে নেওয়া যায়। এই দুই দেশের মধ্যে এখনও জারি যুদ্ধ পরিস্থিতি। বাবা ভাঙার কথা অনুযায়ী, এই ‘উত্তর’ ও ‘দক্ষিণ’-এর লড়াই একটা যুদ্ধের সূচনা করবে। যে যুদ্ধ ১৮৬১ ও ১৮৬৫-র মাঝে হওয়ার যুদ্ধের (আমেরিকান সিভিল ওয়ার) চেহারা নেবে। যে যুদ্ধে ৬২০০০০ লোকের মৃত্যু হয়েছিল। পৃথিবীর শেষ কবে, সেকথাও বলে গিয়েছিলেন বাবা ভাঙা। আর সেটা হল ৩৭৯৭। তবে ততদিনে বসবাসের জন্য অন্য গ্রহ খুঁজে পাওয়া যাবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ঠিক কবে শুরু হবে WORLD WAR 3? বললেন ট্রাম্পের জয়ের ভবিষ্যৎবক্তা