বাড়ি ভর্তি আরাশোলা। যখন তখন বাড়িতে ঢুকে সেগুলি সমস্ত সদস্যদের কার্যত নাচিয়ে তুলছে। হুলস্থুল কান্ড সর্বত্র। আরাশোলার উপদ্রব এতটা বেড়ে গিয়েছিল বাড়ি ভর্তি লোক তাতে অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে। বিষয়টি নিয়ে পরিবারের তরফে বারবার অভিযোগে কার্যত তিতি বিরক্ত হয়ে উঠেছিল বাড়ির মালিক।

বাড়ির বাগানে আরশোলাদের বাস। তাদের অত্যাচারে বাড়িতে বাস করা দুষ্কর হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। স্ত্রীও বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ জানাচ্ছিলেন বারবার। সে জন্য ব্রাজিলের এক ব্যক্তি বাগানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা আরশোলাদের মারতে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছিলেন। কিন্তু সেই ব্যবস্থায় আরশোলারা তো পুরোপুরি মরেইনি, উল্টে লনের বেশ ভালই ক্ষতি হয়েছে। এই ঘটনার ভিডিয়ো ধরা পড়েছে এই ব্যক্তির বাড়ির সিসিটিভি ক্যামেরাতেই। আর সেই ভিডিয়ো নিয়েই এখন হাসাহাসিতে মেতেছে নেটদুনিয়া।

৪৮ বছরের সিজার স্মিটজ সম্প্রতি আরশোলাদের সমূলে ধ্বংস করার পরিকল্পনা নিয়েছিলেন, সে জন্য বাগানের আরশোলাদের গর্তে ঢেলেছিলেন গ্যাসোলিন। তার পর সেখানে ছুঁড়ছিলেন দেশলাই কাঠি। তা করার পরই হয় বিস্ফোরণ। তাতে বাগানের লনের মাটি উঠে, আশেপাশে থাকা জিনিসপত্র ভেঙে একাকার কাণ্ড ঘটে। সাময়িকভাবে ধোয়ায় ভরে যায় গোটা জায়গা। কিন্তু এত কিছুর পরও আরশোলাদের পুরোপুরি মারতে পারেননি সিজার। তাঁর এক চেষ্টার পরও বাগানের লনে আরশোলা ঘুরছে বলে ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে। আর এই বিষয় নিয়েই হাসি ঠাট্টা করছেন নেটিজেনরা। ‘মশা মারতে কামান দাগা’-র মতো জনপ্রিয় প্রবাদের প্রতিফলন ঘটেছে নেটিজেনদের করা মন্তব্যে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ