ফাইল ছবি

নিউজ ডেস্ক: এক তৃণমূল সমর্থকের বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পুরুলিয়ায়৷ পুরুলিয়ার বাগমুণ্ডি থানার হুরুণ্ডা গ্রামের এক তৃণমূল সমর্থকের বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে সোমবার রাতে৷ ওই ঘটনায় এক শিশু সহ ২ জন জখম হয়েছেন৷ স্থানীয় সূত্রে খবর, তৃণমূল সমর্থক মহরম মোবিনের বাড়িতে ওই বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে৷ জখম ওই দুজনকেই ঝাড়খণ্ডের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ দুজনের অবস্থাই আশংকাজনক৷

নির্বাচনের মরশুমে পুরুলিয়ার দু-একটি হিংসার ঘটনা ঘটলেও বিস্ফোরণের ঘটনা এই প্রথম৷ পুরুলিয়ার ইতিমধ্যেই নির্বাচন হয়ে গিয়েছে৷ তবে জেলা জুড়ে চাপা রাজনৈতিক উত্তেজনা রয়েছে৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকেই পুরুলিয়াতে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে ফেলেছে বিজেপি৷

পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপি এই জেলায় ভালো ফল করেছে৷ জঙ্গলমহলে পুরুলিতেই বিজেপির সব থেকে ভালো ফল হয়েছে৷ তৃণমূল কংগ্রেসও জেলা নেতৃত্বকে পরিবর্তন করেছে৷ লোকসভা নির্বাচনে পুরুলিয়ায় শাসকদন এবং গেরুয়া শিবির সমানে-সমানে টক্কর দিয়েছে৷

আরও পড়ুন : আজ কলকাতায় রোড শো অমিত শাহ’র, যানজটের আশংকা

পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে পুরুলিয়াকে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা ঘটেছে৷ তিনজন মানুষের মৃত্যুকে পুরুলিয়া নির্বাচনের সব থেকে বড় ইস্যু বানিয়েছে বিজেপি৷ গেরুয়া শিবিরের ধারণা, পুরুলিয়ার মানুষ ভোট দেওয়ার আগে ওই তিন মানুষের আত্মত্যাগ ভুলবেন না৷ জঙ্গলমহলের ওই তিন মানুষের মৃত্যুই শাসকের আসল চেহারা বুঝিয়ে দিয়েছে৷ মানুষ নিজের মতামত প্রকাশ করার আগে মনে রাখবে৷

কিছুদিন আগেই পুরুলিয়ার জেলার বাঘমুণ্ডি বিধানসভার সোনাবনা গ্রামে ঝুলন্ত বিজেপি কর্মীর দেহ পাওয়া গিয়েছিল৷ বাঘমুণ্ডির শিশুপাল সহিসের (২২) ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনা নিয়ে বিজেপি শাসক তৃণমূলের চক্রান্ত খুঁজে পেয়েছিল৷ ওই ঘটনা মনে করিয়ে দিয়েছিল, ওই জেলারই বলরামপুরের ত্রিলোচন মাহাত এবং দুলাল কুমারের স্মৃতি৷

আরও পড়ুন : আক্রান্ত বিজেপির বুথ এজেন্টের পরিবার, পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ

রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনের ঠিক আগেই পুরুলিয়ার বলরামপুরে বিজেপির দলিত নেতা পানো মাহাতোর ছেলে ত্রিলোচন মাহাতোর ঝুলন্ত দেহ পাওয়া যায়৷ ত্রিলোচনার গায়ে পোস্টার সেঁটে দেওয়া হয় – বিজেপি রাজনীতি করার জন্যই তার মৃত্যু হয়েছে – লেখা ছিল পোস্টারে৷ অন্যদিকে বলরামপুরের দুলাল কুমারের দেহ হাইটেনশন পোলে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়৷ ওই দুটি ঘটনা নিয়ে তোলপাড় হয় রাজ্য রাজনীতি৷ বিজেপির অভিযোগের তীর ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে৷

সোমবার রাতে তৃণমূল সমর্থকের বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় নাশকতার ছক খুঁজে পাচ্ছে পুলিশ৷ তদন্ত শুরু হয়েছে, সমর্খকের বাড়িতে কী ভাবে বোমা এলো? কেউ রেখে গিয়েছে, নাকি তিনি নিজেই লুকিয়ে রেখেছিলেন৷