ইসলামাবাদঃ  প্রবল বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল পাকিস্তান। শুক্রবার রাতে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে প্রবল এই বিস্ফোরণ ঘটে। ঘটনায় বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিস্ফোরণে একাধিক জন জখম হয়েছেন। যাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। জখমের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানাচ্ছে সে দেশের সংবাদমাধ্যম। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে কোয়েটার বুলেলি অঞ্চলে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। ঘটনার পরেই পাকিস্তানে জারি করা হয়েছে হাই-অ্যালার্ট। শুরু হয়েছে তল্লাশি অভিযান।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, জঙ্গিরা পাকিস্তানের সাধারণ মানুষকেই টার্গেট করে। যদিও পুলিশের গাড়িকে টার্গেট করেই এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয় বলে জানা যাচ্ছে। পাকিস্তানের পুলিশ প্রশাসন ছাড়াও বিস্ফোরণের পরেই গোটা এলাকার দখল নিয়েছে ফ্রন্টিয়ার কর্পোসের অফিসাররা। ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছেন বিস্ফোরণ বিশেষজ্ঞরা। ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করছেন তাঁরা। কীভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটল তা খতিয়ে দেখবেন তাঁরা।

যদিও কারা এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটাল পুলিশের কাছে এখনও পর্যন্ত তা স্পষ্ট নয়। কোনও জঙ্গি গোষ্ঠীও এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেনি বলে জানা যাচ্ছে। তবে বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে বহুদূর পর্যন্ত এর আওয়াজ শোনা যায় বলে জানাচ্ছেন স্থানীয় মানুষজন। শুধু তাই নয়, ঘটনার পর কালো ধোঁয়াতে পুরো আকাশ ঢেকে যায় বলেও পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন স্থানীয় মানুষজন।

প্রসঙ্গত, গত সাতদিনের মধ্যে পাকিস্তানের মাটিতে এটি দ্বিতীয় বিস্ফোরণ। শেষ সোমবারও কোয়েটাতেও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। যদিও এতটা তীব্রতা ছিল না বলেই জানা যাচ্ছে। তবে ঘরের মধ্যেই জঙ্গি পোষার ফল বারবার পেলেও এই বিষয়ে নড়েচড়ে বসতে নারাজ ইমরান প্রশাসন।