কলকাতা:  প্রবল বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বারুইপুর। বেআইনি একটি বাজি কারখানায় প্রবল এই বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে বহুদূর পর্যন্ত শব্দ শোনা যায়। শুধু তাই নয়, বিস্ফোরণে কারখানার ছাদের একটি অংশ সম্পূর্ণভাবে উড়ে গিয়েছে।

বেআইনিভাবে বাজি তৈরি করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল সন্তোষ মণ্ডলকে৷ জেল থেকে ছাড়া পেয়েই বাড়িতে ফের নিষিদ্ধ বাজি তৈরি শুরু করেন৷ বৃহস্পতিবার সকালে সেখানেই বিস্ফোরণ ঘটে৷ ঘটনাস্থল হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার চম্পাহাটি৷ ঘটনার পর থেকেই বাজি কারখানার মালিক সন্তোষ মণ্ডল পলাতক৷

স্থানীয় সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকালে চম্পাহাটির হারালে শোলগুলিয়া গ্রামের একটি বাজি কারখানার বিস্ফোরণ ঘটে৷ বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে, পুরো এলাকা কেপে উঠে৷ বেআইনি ওই বাজি কারখানায় আগুন জ্বলতে থাকে৷ উড়ে গিয়েছে কারখানার চাল। ঘটনায় কারখানার দু’জন গুরুতর আহত হয়েছেন৷ স্থানীয় বাসিন্দারাই তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে৷ আশঙ্কাজনক অবস্থায় দুলাল নস্কর ও সত্য মণ্ডল সোনারপুরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন৷

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে বারুইপুর থানার পুলিশ ও দমকল৷ সন্তোষ মণ্ডলের বাজি কারখানা থেকে প্রচুর নিষিদ্ধ বাজি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ৷ কিভাবে চম্পাহাটির ওই বাজি কারখানায় বিস্ফোরণ ঘটেছে তার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷