চট্টগ্রাম: সকালের ভিড়ে ঠাসা এলাকায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের শব্দে সবাই হতচকিত হয়ে গেলেন।
কী হয়েছে কিছু বোঝার আগেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়লো বিরাট পাঁচিল। তাতে চাপা পড়লেন পথ চলতি কয়েকজন।

ঘটনাস্থল চট্টগ্রাম। বাংলাদেশের বন্দরনগরীর পাথরঘাটের বড়ুয়া ভবনের কাছে একটি বাড়িতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হয়েছে এই বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার ফেটেছে। আরও মনে করা হয়, গ্যাস সরবরাহকারী লাইনের মধ্যে বিস্ফোরণ হয়েছে়।

এদিকে বিস্ফোরণের তীব্রতা এতই যে ভেঙে পড়ে বড়ুয়া ভবনের পাশে কুঞ্জমনি ভবন। এই দুর্ঘটনায় ইতিমধ্যেই নিহতের সংখ্যা ৭ জন। জানা গিয়েছে এই আরও জনা কুড়ি জখম। তাদের চিকিৎসা চলছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ভয়াবহ গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনায় চট্টগ্রাম শহর জুড়ে ছড়িয়েছে আতঙ্ক। উদ্বিগ্ন প্রশাসন এই বিস্ফোরণকাণ্ডে পরে তদন্ত কমিটি গঠন করে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং ৬০ দিনের মধ্যে এই কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

এই ঘটনায় নিহতদের প্রত্যেককে জেলা প্রশাসন এবং চট্টগ্রাম কর্পোরেশনের তরফ থেকে কুড়ি হাজার টাকা দেওয়া হবে। আহত চিকিৎসার সমস্ত খরচ দেওয়া হবে।

ভেঙে পড়া ভবনের বাসিন্দা শিক্ষক অঞ্জন কান্তি দাস জানিয়েছেন, সকালে বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গে পুরো বাড়িটি কেঁপে ওঠে। আমাদের বাড়ির জানালার কাচ ভেঙে যায়। অনেকে জিনিসপত্র মাটিকে ছড়িয়ে পড়ে। আরও কয়েকজন বলেন, বিস্ফোরণের পর ভবনটি ভেঙ্গে পড়ে। বাড়ির পাঁচিল রাস্তায় পথ চলতি কয়েকজনের উপর পড়ে যায়।

রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের নিয়ে যাওয়া হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসকরা ৭ জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আরও কয়েকজনের অবস্থা চিন্তাজনক। এদিকে নিহতদের স্বজনরা হাসপাতালে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন।