প্রতীতি ঘোষ, ব্যারাকপুর: বৃষ্টি ও লকডাউনে জমায়েত না-করার সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করেই উত্তর ২৪ পরগনার বরানগরের বিজেপি কর্মীরা সুষ্ঠ পৌর পরিষেবার দাবিতে বরানগর পৌরসভার সামনে এদিন বিক্ষোভ দেখায় এবং পৌরসভায় গিয়ে প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি জমা দেয়।

বিজেপি কর্মীদের দাবি, বরানগর পৌরসভা এলাকা জুড়ে চলছে পানীয় জলের সংকট, পৌরপরিষেবা যথাযথ পাচ্ছে না এলাকার বাসিন্দারা। আমফান ঝড়ের পরে কেটে গেছে প্রায় ৩ সপ্তাহ, এখনও বিভিন্ন এলাকায় গাছ পড়ে রয়েছে, বিদ্যুতের খুঁটিতে আলো জ্বলেনি। দুঃস্থ অসহায়দের কাছে ন্যুনতম ত্রিপল ও পৌঁছে দেয়নি প্রশাসন। প্রকৃত গরীব মানুষ সরকারি সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

তাই গরীব মানুষকে সহায়তা দেওয়ার দাবিতে শুক্রবার দুপুরে বরানগর পৌরসভার গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মীরা। এই বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেন উত্তর কলকাতা জেলার সভাপতি কিশোর কর। বরানগর পৌরসভার মূল প্রবেশদ্বারের সামনে শুক্রবার প্রায় দু’ঘন্টা বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপি কর্মী ও নেতৃত্বরা।

বৃষ্টিকে উপেক্ষা করেই এই বিক্ষোভ সমাবেশ চলে পৌরসভার গেটের সামনে। এরপর বিভিন্ন দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপিও জমা দেওয়া হয় পৌরসভার প্রশাসকের কাছে। এদিন বিজেপির এই কর্মসূচি সম্পর্কে বিজেপির উত্তর কলকাতা জেলার সভাপতি কিশোর কর বলেন, “আমরা আমাদের দাবি পুরসভার কাছে পেশ করেছি । ওরা বলেছেন কোন কোন ওয়ার্ডে সমস্যা আছে, কি কি সমস্যা আছে তার তালিকা পৌরসভার কাছে জমা দিতে । আমরা শীঘ্রই সেই তালিকা জমা দেব । আমরা চাই এই অঞ্চলের বঞ্চিত, দুঃস্থ, গরীব মানুষ প্রকৃত সুবিধা পাক । গরীব মানুষের পাশে দাঁড়াতে আমরা আজকে এই কর্মসূচি গ্রহণ করে ছিলাম ।”

বরানগর পৌরসভার সামনে এই বিক্ষোভ সমাবেশের নেতৃত্ব দেন বিজেপির কলকাতা উত্তর শহরতলীর জেলা সভাপতি কিশোর কর, জেলা সম্পাদক অভিজিৎ দাস-সহ অন্যান্য বিজেপি নেতৃবৃন্দ।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ